ঢাকা     বুধবার   ২৬ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ১২ ১৪২৮ ||  ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

প্রাণ ফিরলো খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে

লোফাজ শেখ, খুবি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৩৩, ৩১ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৭:৪৪, ৩১ অক্টোবর ২০২১
প্রাণ ফিরলো খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে

করোনায় দীর্ঘ ১৯ মাস বন্ধ থাকার পর খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) সশরীরে ক্লাস শুরু হয়েছে। 

রোববার (৩১ অক্টোবর) সকাল ৯টায় বিভিন্ন ডিসিপ্লিনে সশরীরে পাঠদান শুরু হয়। 

এতদিন অনলাইনে ক্লাস চললেও এখন থেকে সশরীরে শ্রেণিকক্ষে উপস্থিত হয়ে ক্লাস ও পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এ ছাড়া, গত ১৮ অক্টোবর শিক্ষার্থীদের জন্য সব আবাসিক হল খুলে দেওয়া হয়েছে।  

শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে আবারও প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে খুবির সবুজ অঙ্গনে। শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত হয়েছে ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণ। বিশ্ববিদ্যালয়ের হাদী চত্বর, ক্যাফেটেরিয়া, শহিদ মিনার প্রাঙ্গণ, অদম্য বাংলা ও হলরোড সংলগ্ন দোকানগুলোসহ বিভিন্ন স্থান ঘুরে শিক্ষার্থীদের ব্যাপক উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে দেখা গেছে। সবাই ব্যস্ত ছিলন একে-অপরের সঙ্গে কুশলাদি বিনিময়, গল্প-আড্ডায়। কেউ বন্ধুর সঙ্গে বসে চা খাচ্ছেন আবার বন্ধুরা মিলে বসিয়েছেন গানের আসর। 

এছাড়া, ক্লাসে ফিরতে পেরে উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থীরা। শিক্ষকদের আন্তরিক সহযোগিতায় পড়ালেখায় করোনার ক্ষতি পুষিয়ে স্বাভাবিক শিক্ষা ও কর্মজীবনে ফেরার প্রত্যাশা করছেন তারা। 

আইন ডিসিপ্লিনের শিক্ষার্থী মো. নাসিম বিল্লাহ বলেন, ‘অনেক দিন পর ক্যাম্পাস খোলায় নতুন জীবন ফিরে পেয়েছি। দীর্ঘদিন পর বন্ধুদের সাথে দেখা হচ্ছে। পুরনো সবকিছু নতুন মনে হচ্ছে। ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত হওয়ায় ক্যাম্পাস আবারও তার চিরচেনা রূপে ফিরে আসায় খুব ভালো লাগছে।’ 

কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্চিনিয়ারিং ডিসিপ্লিনের শিক্ষার্থী মনিরুজ্জামান বলেন, ‘এতদিন পর ক্লাসে ফিরতে পেরে অনুভূতিটা অন্যরকম হচ্ছে। দেড় বছরেরও বেশি সময় বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকার কারণে শিক্ষার্থীরা দীর্ঘ সেশনজটের মুখে পড়েছে। হল খোলার পর ক্লাস পরীক্ষা শুরু হওয়া আমাদের জন্য আনন্দের বিষয়। আমরা দীর্ঘ সেশনজটের কবল থেকে রক্ষা পাবো হয়তো।’ 

ইংরেজি ডিসিপ্লিনের শিক্ষার্থী সাদিয়া আফরিন বলেন, ‘দীর্ঘসময় পর প্রিয় শিক্ষক ও সহপাঠীদের ক্লাসে ফিরে পেয়ে আমরা অনন্দিত। করোনার দিনগুলো শেষে আবারও ক্যাম্পাসে গল্প-আড্ডা জমবে ভাবতেই ভালো লাগছে।’   

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক, স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) শ্রেণির ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের দ্বিতীয় টার্মের চূড়ান্ত পরীক্ষা আগামী ৫ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে। চলবে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। 

প্রণীত একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী দ্বিতীয় টার্মের রেজিস্ট্রেশন (জরিমানা ছাড়া) ৩১ অক্টোবর থেকে ৬ নভেম্বর পর্যন্ত, রেজিস্ট্রেশন (জরিমানাসহ) ৭ নভেম্বর থেকে ১৩ নভেম্বর পর্যন্ত, রিভিউ ক্লাস চলবে ৩১ অক্টোবর থেকে ২০ নভেম্বর, পরীক্ষা সংক্রান্ত প্রস্তুতিমূলক ছুটি (পিএল) ২১ নভেম্বর থেকে ৪ ডিসেম্বর, দ্বিতীয় টার্মের চূড়ান্ত পরীক্ষা গ্রহণ ৫ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. খান গোলাম কুদ্দুস বলেন, ‘আমরা ১৮ তারিখ থেকে প্রাথমিকভাবে চতুর্থ বর্ষ ও মাস্টার্সের শিক্ষার্থীদের জন্য হল খুলে দিয়েছি এবং ২৬ তারিখ থেকে সব বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য হল খুলে দেওয়ায় আবাসিক শিক্ষার্থীরা হলে ফিরেছে। মোটামুটি আগের মতো অনুভূতি হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের সেনজট নিরসনে আমরা ডিসেম্বরের মধ্যে দ্বিতীয় টার্ম শেষ করার ঘোষণা দিয়েছি। এতে শিক্ষার্থীদের জন্য একটু চাপ হলেও ঠিকসময়ে পরীক্ষা শেষ হবে, এজন্য তারা খুশি।’

/মাহি/

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়