ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১১ ১৪৩১

চাঁবিপ্রবির অ্যাকাডেমিক কার্যক্রমের এক বছর

চাঁবিপ্রবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৩১, ২০ মে ২০২৪  
চাঁবিপ্রবির অ্যাকাডেমিক কার্যক্রমের এক বছর

পদ্মা, মেঘনা ও ডাকাতিয়া নদীর মিলনস্থল এবং ইলিশের বাড়িতে গত বছর ২০ মে চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চাঁবিপ্রবি) শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়। আজ সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়টি শিক্ষা কার্যাক্রম এক বছরে পা দিয়েছে।

কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি এবং ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগ তিনটিতে মোট ৯০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টি অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম শুরু করে। বর্তমানে দুইটা ব্যাচে চাঁবিপ্রবির প্রায় ১৮০ জন শিক্ষার্থী রয়েছে।

অনুভূতি জানাতে গিয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের শিক্ষার্থী অবনী খন্দকার বলেন, আমাদের ক্লাস-পরীক্ষা নিয়মিত হয়। নতুন হলেও আমরা পর্যাপ্ত ল্যাবরেটরি সুবিধা পাচ্ছি। 

ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী নাইমুর রহমান নিয়ামুল বলেন, চাঁবিপ্রবির লাইব্রেরিতে পর্যাপ্ত  অ্যাকাডেমিক বইয়ের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধসহ বিভিন্ন ধরনের বই রয়েছে। নতুন বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আমরা যে সব সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছি, যা কল্পনাতীত। স্থায়ী ক্যাম্পাসের বিষয়টি দ্রুত সমাধান হলে, আশা করি চাঁবিপ্রবি অনন্য মাত্রায় চলে যাবে।

ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রভাষক মো. বাইজীদ আহম্মেদ রনি বলেন, অনেক বাঁধা পেরিয়ে গত বছর এই দিন শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করে চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। গত এক বছর ধরে শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়টি নিয়মিতই সমৃদ্ধ হচ্ছে। সবার  সহযোগিতায় সামনের দিনগুলো আরও সুন্দর হবে।

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. নাছিম আখতার বলেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শিক্ষায় উন্নত বিশ্বের সঙ্গে সমতা অর্জন এবং মানসম্মত গবেষণার সুযোগ সৃষ্টির মাধ্যমে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা জেলায় জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেন। এরই ধারাবাহিকতায় ২০২০ সালে ১৫ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্রপতি চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুমোদন করেন। করোনার কারণে শিক্ষা কার্যক্রম কিছুটা বিলম্বে হলেও গত বছর অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম চালুর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে শিক্ষা ও গবেষণায় নতুন দ্বার উন্মোচন করে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের কঠোর অধ্যবসায় এবং মননশীল গবেষণার মাধ্যমে এ বিশ্ববিদ্যালয় বহুদূর এগিয়ে যাবে বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ও প্রযুক্তি নির্ভর স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে চাঁবিপ্রবি অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।
 

/সাজিদ/মেহেদী/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়