Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

আমন্ত্রণপত্রে কি ইঙ্গিত দিলেন পরীমনি

জ্যেষ্ঠ বিনোদন প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৫৭, ২৩ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৩:৫৮, ২৮ অক্টোবর ২০২১
আমন্ত্রণপত্রে কি ইঙ্গিত দিলেন পরীমনি

পরীমনির জন্মদিন মানেই বিশেষ কিছু। প্রতি বছর দিনটি ঘিরে বিভিন্ন পরিকল্পনা করেন এই চিত্রনায়িকা। এবারও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না।

ইতোমধ্যেই পরীমনি এক দিনের ছুটি নিয়েছেন। আগামী ২৫ অক্টোবর থেকে তিনি আবার ‘গুণীন’-এর শুটিং সেটে ফিরে যাবেন। কিন্তু আগামীকাল দিনটি তিনি রেখেছেন শুধুই নিজের জন্য।

সত্যিই কি তাই? শুধুই নিজের জন্য?

আনন্দ কখনও একা করা যায় না। বিজ্ঞজনেরা বলেন, আনন্দ সবার সঙ্গে ভাগ করে নিতে হয়। কথাটি পরীমনির অজানা নয়। এ কারণে এই চিত্রনায়িকারও রয়েছে বিশেষ প্রস্তুতি। শুভাকাঙ্ক্ষীদের তিনি আমন্ত্রণ জানিয়েছেন সেই আনন্দযজ্ঞে যুক্ত হতে। আমন্ত্রণপত্রেও রয়েছে সৃজনশীলতার ছাপ। 

আমন্ত্রণপত্র হাতে পেয়ে যে কেউ মনে করবেন এটি বিমানের টিকেট। আমন্ত্রণপত্রে বিমানের ছবিও রয়েছে। শিরোনামে লেখা: তোমার খাঁটি হৃদয় নিয়ে আমার কাছে এসো এবং আমার সঙ্গে উড়ে বেড়াও চিরদিনের জন্য।

পরীমনিকে যারা চেনেন, তারা জানেন তিনি মুক্তমনা। সবাইকে নিয়ে আনন্দ উদযাপন করতে ভালোবাসেন। এবারও সেই আয়োজনের যে ঘাটতি থাকবে না আমন্ত্রণপত্র দেখেই বোঝা যাচ্ছে। কিন্তু একটি বিষয় পরিষ্কার- বিশেষ বন্ধুরাই এদিন পরীমনির আনন্দ উদযাপনের সঙ্গী হবেন। পরীমনির ভাষায় যাদের রয়েছে ‘খাঁটি হৃদয়’। 

প্রতি বছর পরীমনি জন্মদিনের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য ড্রেস কোড বাধ্যতামূলক করে দেন। এবারও ড্রেস কোড হিসেবে পুরুষের জন্য সাদা আর নারীদের জন্য লাল রঙ বেছে নিয়েছেন তিনি। ড্রেস কোড না হলেও ‘খাঁটি হৃদয়’-এর বিষয়টিও যে বিবেচ্য আমন্ত্রণপত্রে ঈঙ্গিতে তাই কি বলে দিলেন না এই লাস্যময়ী?

উল্লেখ্য পরীমনি গত ২০ অক্টোবর ফেইসবুকে একটি স্ট্যটাস দেন। সেখানে ভক্তদের উদ্দেশ্যে তিনি একটি গল্প বলেন। গল্পের সারাংশ হিসেবে তিনি লেখেন: ‘যারা বিপদের সময় তোমার পাশে থাকেনি তারা তোমার আনন্দের অংশীদারী হওয়ার যোগ্যতাও রাখে না।’ শুধু তাই নয়, এরপর এই চিত্রনায়িকা হ্যাশট্যাগে লেখেন: ‘২৪ অক্টোবর ফ্যাক্ট’।

পরীমনির জন্মদিন উপলক্ষে গতবার ময়ূরের আদলে পাঁচতারা হোটেলের সবটুকু জায়গাজুড়ে সবুজ অরণ্য তৈরি করা হয়েছিল। প্রবেশ মুখে ছিল ময়ূরের ম্যুরাল।  ভেতরেও ময়ূরের পালক দিয়ে সাজানো ছিল।অনুষ্ঠানে ময়ূর বেশে জ্যোতি ছড়ান পরীমনি। এবার অনুষ্ঠানের থিম কি হবে এই কৌতূহলও রয়েছে ভক্তকুল এবং চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্টদের মনে। সেটি অবশ্য ফাঁস করেননি বর্তমান সময়ের আলোচিত এই নায়িকা।     

ঢাকা/তারা

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়