ঢাকা     শুক্রবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৮ ১৪২৯ ||  ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

‘ইত্যাদি’ এবার পাঁচ নদীর মোহনায়

বিনোদন ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:০২, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২   আপডেট: ১৮:০৯, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২
‘ইত্যাদি’ এবার পাঁচ নদীর মোহনায়

বাংলাদেশ টেলিভিশনের বহুল দর্শকপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’। দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সভ্যতা, সংস্কৃতি, শিল্প-সাহিত্য, প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনসহ নানা বিষয়ই তুলে আনা হয় এই অনুষ্ঠানে।

‘ইত্যাদি’র এবারের পর্ব ধারণ করা হয়েছে ঝালকাঠিতে। এ জেলার ধানসিড়ি, সুগন্ধা, বিশখালী, বাসন্ডা, গাবখান— এই পাঁচ নদীর মোহনায় নির্মাণাধীন ধানসিড়ি ইকো পার্কে তৈরি করা হয় ইত্যাদির মঞ্চ। গত ১৮ সেপ্টেম্বর এ পর্বের দৃশ্যধারণের কাজ হয়। এদিন ঝালকাঠিতে উৎসবমুখর পরিবেশ ছিল। দর্শকদের বাঁধভাঙা জোয়ারে পুরো মাঠ ছিল পরিপূর্ণ।

শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা জানিয়ে হানিফ সংকেত বলেন—‘এর আগে ঝালকাঠিতে কখনো কোনো অনুষ্ঠানে এত দর্শক সমাগম হয়নি বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। সেখানকার কর্দমাক্ত ও অপ্রশস্ত রাস্তা গাড়ি চলাচলের জন্য অনুপযুক্ত। তাই দর্শকদের প্রায় দেড় কিলোমিটার পথ হেঁটে অনুষ্ঠানস্থলে আসতে হয়। হেঁটে আসার কষ্ট, ভ্যাপসা গরম এবং বৃষ্টির ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও দর্শকরা ছিলেন স্বতঃস্ফূর্ত।’

শেকড়ের সন্ধানে ‘ইত্যাদি’ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে প্রচারবিমুখ, জনকল্যাণে নিয়োজিত মানুষদের তুলে ধরার পাশাপাশি বিভিন্ন তথ্যভিত্তিক ও শিক্ষামূলক প্রতিবেদন প্রচার করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় এবারের ইত্যাদিতেও রয়েছে কিছু মানবিক, সচেতনতা, তথ্যভিত্তিক ও শিক্ষামূলক প্রতিবেদন।

জন্ম-মৃত্যু এক সূত্রে গাঁথা এক অভিন্ন চেতনার নাম। এবারের অনুষ্ঠানে এই বিষয়ে একটি দ্বৈত সংগীত গেয়েছেন এ সময়ের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী রবি চৌধুরী ও শফি মণ্ডল। গানটির কথা লিখেছেন কবির বকুল, সুর করেছেন হানিফ সংকেত। সংগীতায়োজন করেছেন মেহেদি। রয়েছে ঝালকাঠির নদী ও গৌরবগাঁথা নিয়ে একটি পরিচিতিমূলক গানের সঙ্গে স্থানীয় প্রায় শতাধিক নৃত্যশিল্পীর নাচ। গানটির কথা লিখেছেন মনিরুজ্জামান পলাশ। সুর করেছেন হানিফ সংকেত। সংগীতায়োজন করেছেন মেহেদি। নৃত্য পরিচালনা করেছেন দেবাশীষ সেনগুপ্ত।

দর্শক পর্বের নিয়ম অনুযায়ী, ধারণস্থল ঝালকাঠিকে নিয়ে করা প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে উপস্থিত দর্শকের মাঝখান থেকে ৪ জন দর্শক নির্বাচন করা হয়। যাত্রা প্রিয় এই ঝালকাঠিতেই দেড়শত বছর আগে প্রথম ‘নাথ’ ও ‘নট্ট’ নামে বাংলার শ্রেষ্ঠ দুটি যাত্রা দলের যাত্রা শুরু হয়। তাই দর্শক পর্বের দ্বিতীয় পর্বে নির্বাচিত দর্শকদের জন্য বিষয় নির্বাচন করা হয় যাত্রাভিনয়।

ঝালকাঠির মঞ্চে এবার নাতি এবং ভাগ্নেকে দেখা গেলেও ছিলেন না নানি-মামা। সাথীহারা নাতি এবং মামা ছাড়া ভাগ্নে কী করেছে এবারের ইত্যাদিতে তা দেখার আহ্বান জানিয়েছেন হানিফ সংকেত। নিয়মিত পর্ব হিসেবে এবারো রয়েছে বিদেশি প্রতিবেদন ও চিঠিপত্র পর্ব। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক অসঙ্গতি ও সমসাময়িক ঘটনা নিয়ে রয়েছে বেশ কয়েকটি বিদ্রুপাত্মক নাট্যাংশ।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টার বাংলা সংবাদের পর ‘ইত্যাদি’র এই পর্ব একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচার হবে। বরাবরের মতো এবারের পর্ব রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। ফাগুন অডিও ভিশন নির্মিত ‘ইত্যাদি’র পৃষ্ঠপোষকতা করেছে কেয়া কসমেটিকস লিমিটেড।

ঢাকা/শান্ত

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়