ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১১ ১৪৩১

খাল থেকে উদ্ধার ‘ডানা কাটা পরী’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৩৪, ১১ মে ২০২৪   আপডেট: ১৪:০৩, ১১ মে ২০২৪
খাল থেকে উদ্ধার ‘ডানা কাটা পরী’

রাজধানীর গুলশান-২ এর একটি রাস্তায় দেখা গেছে ‘ডানা কাটা এক পরী’। সেই পরী’র আশপাশে রয়েছে সোফা, লেপতোশক, টায়ার, প্লাস্টিকের বোতল, কমোড, বেসিন, টেলিভিশনসহ ঘরের ব্যবহার্য নানাবিধ জিনিসপত্র। যদিও সেসবে তেমন আগ্রহ নেই উপস্থিত মানুষের মধ্যে। সবার আগ্রহ মূলত পরী’র দিকে। এটি আসলে একটি সিরামিকের মূর্তি। পরীসহ উল্লেখিত সব পণ্যই পরিত্যক্ত।

শনিবার (১১ মে) সকালে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ভবনের রাস্তায় এসব পরিত্যক্ত জিনিসপত্র সর্বসাধারণের প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়। সাত দিনব্যাপী চলবে এই বর্জ্য প্রদর্শনী।

এসব পরিত্যক্ত জিনিসপত্রের সামনে একটি কাগজে লেখা- সংগৃহীত বর্জ্য: মোহাম্মদপুর কাদেরাবাদ হাউজিং খাল থেকে প্রাপ্ত। ওয়ার্ড নম্বর ৩০, অঞ্চল ৫।

একইভাবে মোহাম্মদপুরের লাউতলা খাল, গুলশান-বনানী লেক, আদাবর খাল থেকে পাওয়া বিভিন্ন ধরনের বর্জ্য এ প্রদর্শনীতে রাখা হয়েছে। সকাল ১১টার পরে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। এসময় তিনি ঘুরে ঘুরে বর্জ্যগুলো দেখেন এবং প্রদর্শনীতে আসা বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও নাগরিকদের সচেতন করেন।

মেয়র আতিক বলেন, আমরা পরিনাম না ভেবে অসচেতনভাবে ঘরের বিভিন্ন বর্জ্য খাল, ডোবা, নালা, ড্রেনে ফেলে দেই। এতে পরিবেশ দূষণ হয়, বর্ষায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। আজকে এই বর্জ্য-প্রদর্শনের আয়োজনের উদ্দেশ্য নাগরিকদের মধ্যে সচেতনতার সৃষ্টি করা।

জলবদ্ধতার জন্য দশটি অঞ্চলে দশটি কুইক রেসপন্স টিম গঠন করা হয়েছে  জানিয়ে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, রাজধানীর বিভিন্ন খাল থেকে পাওয়া এসব বর্জ্যের কারণেই খালগুলোতে পানি প্রবাহ আটকে যাচ্ছে, সৃষ্টি হচ্ছে নগরে জলাবদ্ধতা। যার কারণে ভোগান্তিতে পড়েন নগরবাসী। তাই, যারা খালে বর্জ্য ফেলবেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান মেয়র আতিক। 

যত্রতত্র বর্জ্য ফেলায় পরিবেশ দূষণের পাশাপাশি এডিস মশার জন্ম হয় জানিয়ে মেয়র বলেন, আমাদের অসচেতনতায় ডেঙ্গু ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে। মনে রাখবেন, খাল-ড্রেন পরিষ্কার থাকলে জলাবদ্ধতা ও মশার উপদ্রব থেকে আমরা রক্ষা পাবো। খাল জলাধার রক্ষা করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। আর খাল-ড্রেন ও জলাধারে ময়লা ফেলা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। তাই প্রত্যেকে নিজ আঙ্গিনা পরিষ্কার রাখলে, সবাই মিলে সুস্থ থাকতে পারবো।

প্রদর্শনীতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। এসময় মেয়র তাদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধিতে পরামর্শমূলক বক্তব্য রাখেন।

এমএ/টিপু

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়