ঢাকা     বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||  ভাদ্র ২ ১৪২৯ ||  ১৮ মহরম ১৪৪৪

ঢাবি ছাত্রীর ধর্ষণ মামলায় মামুনের বিচার শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:১৮, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২  
ঢাবি ছাত্রীর ধর্ষণ মামলায় মামুনের বিচার শুরু

ঢাকার লালবাগ থানায় দায়ের করা ধর্ষণ মামলার একমাত্র আসামি ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক সভাপতি হাসান আল মামুনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন ট্রাইব্যুনাল। এর ফলে মামুনের বিরুদ্ধে বিচার শুরু হলো।

বৃহস্পতিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক হাবিবুর রহমান সিদ্দিকী এ আদেশ দেন। একইসঙ্গে আগামী ৬ এপ্রিল সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ ধার্য করেন আদালত।

এদিন হাসান আল মামুনের পক্ষে তার আইনজীবী যোবায়ের আহমেদ মামলা থেকে অব্যাহতির আবেদন করেন। সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আলী আকবর এর বিরোধিতা করে অভিযোগ গঠনের প্রার্থনা করেন। শুনানি শেষে আদালত মামুনের কাছে জানতে চান তিনি দোষী না নির্দোষ। এ সময় হাসান আল মামুন নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচার চান। শুনানি শেষে বিচারক তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন। 

২০২১ সালের ১৭ জুন ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক (সাময়িক অব্যাহতিপ্রাপ্ত) হাসান আল মামুনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার কর্মকর্তা লালবাগ থানার পরিদর্শক আসলাম উদ্দিন মোল্লা। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলা থেকে নুরুল হক নুর ছাড়াও নাজমুল হাসান সোহাগ, সাইফুল ইসলাম, নাজমুল হুদা এবং আবদুল্লাহ হিল বাকীকে অব্যাহতির সুপারিশ করা হয়।

গত ৩ নভেম্বর পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুরসহ পাঁচজনকে অব্যাহতির আদেশ দেন আদালত।

২০২০ সালের ২০ সেপ্টেম্বর রাতে ঢাবির এক ছাত্রী বাদী হয়ে লালবাগ থানায় ভিপি নুরসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এই মামলায় হাসান আল মামুনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ ও অন্যদের বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহায়তা ও মেসেঞ্জার গ্রুপে কুৎসা রটানোর অভিযোগ আনা হয়।

একই বাদী ২০২০ সালের ২২ সেপ্টেম্বর কোতয়ালি থানায় আরেকটি ধর্ষণ মামলা করেন। যেখানে নাজমুল হাসান সোহাগের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ ও হাসান আল মামুনকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অভিযুক্ত করে গত ১০ জুন অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। 

ঢাকা/মামুন/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়