RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৭ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ৩ ১৪২৭ ||  ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

‘দ্যাটস সাকিব... ওয়েলকাম ব্যাক’

ইয়াসিন হাসান || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৪৮, ২৪ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ২৩:২৮, ২৪ নভেম্বর ২০২০
‘দ্যাটস সাকিব... ওয়েলকাম ব্যাক’

ম্যাড়ম্যাড়ে ব্যাটিং চলছিল মিরপুরের ২২ গজে। বোলার বোলিং করছেন, ব্যাটসম্যান আঁটসাঁট হয়ে ব্যাটিং করছেন। কিন্তু ওই শটটার পর পাল্টে গেলো সব। 

ধারভাষ্যে নতুন প্রাণের সঞ্চার। আতাহার আলী খান চিরাচরিত কণ্ঠে বলে উঠলেন, ‘দ্যটস সাকিব… আওয়ার বয়। ওয়েলকাম ব্যাক।’ আতাহারের জন্য দিনটি বেশ স্মরণীয়। দেশের সবচেয়ে বড় তারকাকে নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরার পর উইকেটে ব্যাটিং ও বোলিংয়ের সময় স্বাগত জানিয়েছিলেন। বাংলাদেশের জন্য দিনটি কম গুরুত্বপূর্ণ নয়। এক বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ‘বাংলাদেশের জান, বাংলাদেশের প্রাণ, সাকিব আল হাসান’ এ ম্যাচটা দিয়েই যে ফিরলেন। 

সেই শটটা যারা দেখেছে, তাদের চোখে লেগে আছে নিশ্চয়ই। যারা দেখেননি তাদের রিপ্লে দেখার আমন্ত্রণ। বোলার ছিলেন সুমন খান। নতুন ওভারে বোলিংয়ে এসেছেন। আগের ওভারে সাকিবকে দুই-একবার ভুগিয়েছেন। আবার সাকিব তার লেন্থ বলেই স্লগ করে মিড উইকেট দিয়ে বাউন্ডারি মেরেছেন। কিন্তু পাওয়ার প্লের শেষ ওভারে দ্বিতীয় বলে সাকিবের শটটা ছিল এক কথায় নান্দনিক, অনিন্দ্য সুন্দর।  

ডানহাতি পেসারের অফ স্টাম্পের বাইরের শর্ট বল। জায়গায় দাঁড়িয়ে হালকা পা বাড়িয়ে কভার ড্রাইভ সাকিবের। হাই এলবো, ব্যাট-প্যাড ও মাথার রসায়ন ধ্রুপদী। শটটা নেওয়ার পর সাকিবকে আর বলের দিকে তাকাতে হয়নি। ধারাভাষ্যে আতাহারের সঙ্গে ছিলেন আয়ারল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটার নিল ও’ব্রায়েন। তার মুখে সাকিব স্তুতি, ‘সাকিবের ট্রেডমার্ক শট। অনেক দিন পর দেখার সুযোগ হলো। ধন্যবাদ সাকিব।’ 

২০১৮ সালে তিনবার জুয়ারিদের কাছ থেকে ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব পেলেও আইসিসির দুর্নীতি বিরোধী ইউনিটকে না জানানোয় এক বছরের স্থগিত নিষেধাজ্ঞাসহ দুই বছরের জন্য সব রকমের ক্রিকেটীয় কার্যক্রম থেকে নিষিদ্ধ করা হয় সাকিবকে। সেই নিষেধাজ্ঞা শেষ হয় ২৮ অক্টোবর। পর দিন থেকে মাঠে ফিরতে পারতেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। কিন্তু প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট না থাকায় সাকিবের ফেরা বিলম্ব হয়। 

‘বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ স্পন্সরড বাই ওয়ালটন’ দিয়ে সাকিবের অপেক্ষা ফুরিয়েছে। প্রত্যাবর্তনে সাকিব বরাবরই তেজস্বী। এর আগে বিভিন্ন কারণে দুইবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন। দুইবারই সাকিব ফেরেন স্বরূপে, স্বমহিমায়। কিন্তু এবারের ফেরাটা রাঙাতে পারেননি। হয়তো বোলিংয়ে পেরেছেন। ব্যাটিংয়েও চাইলে পারতেন। সেটা হয়নি। তবে সময় তো ফুরোয়নি। 

সুমন খানের বলে ওই কভার ড্রাইভে পাওয়া বাউন্ডারি ছিল আজকের দিনের শেষ রান তার। শর্ট বল পুল করে ক্যাচ দেওয়ার আগে সাকিবের ব্যাট থেকে আসে ১৩ বলে ১৫ রান। এছাড়া বোলিংয়ে ৩ ওভারে ১৮ রান দিয়ে নিয়েছেন আফিফ হোসেনের উইকেট। ফিল্ডিংয়ে তার মধ্যে জড়তা দেখা গেছে। সীমানায় একটি বাউন্ডারি চাইলে ডাইভ দিয়ে বাঁচাতে পারতেন। আবার রানিং বিটুউন দ্য উইকেটে ছিলেন খানিকটা মন্থর।

সব কিছুকে ছাপিয়ে সাকিব ফিরেছেন ২২ গজে। এটাই কি সবচেয়ে খুশির খবর নয়! আতাহারের সঙ্গে সুর মিলিয়ে বলতেই হয়, ‘ওয়েলকাম ব্যাক।’

ঢাকা/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়