Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৬ ১৪২৮ ||  ১২ সফর ১৪৪৩

বাংলাদেশকে থামিয়ে জিম্বাবুয়ের অসাধারণ জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:১২, ২৩ জুলাই ২০২১   আপডেট: ২০:১৩, ২৩ জুলাই ২০২১
বাংলাদেশকে থামিয়ে জিম্বাবুয়ের অসাধারণ জয়

দারুণ জয়ে বাংলাদেশকে ২৩ রানে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজে সমতা ফেরাল জিম্বাবুয়ে। ব্যাটিংয়ে ১৬৬ রানের লড়াকু পুঁজি সংগ্রহের পর নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে বাংলাদেশকে ১৪৩ রানে আটকে রাখে জিম্বাবুয়ে।  

জিম্বাবুয়ের জয়ের দিনে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স ছিল একেবারেই নির্বিষ। ব্যাটিং, বোলিংয়ে কোনো বিভাগেই ভালো করতে পারেনি অতিথিরা। তাতে ম্যাচ অতি সহজেই জিতে নেয় জিম্বাবুয়ে। এর আগে প্রথম ম্যাচ বাংলাদেশ জিতেছিল ৮ উইকেটে।

টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর প্রথম টি-টোয়েন্টিও হেরেছিল জিম্বাবুয়ে। টানা ৫ ম্যাচ জিতে উড়ছিল বাংলাদেশ। এবার অতিথিদের থামিয়ে দুর্দান্ত জয়ে সিরিজে সমতা ফেরাল স্বাগতিকরা। ২৫ জুলাই একই মাঠে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ খেলবে দুই দল।

 

স্কোর: বাংলাদেশ ১৪৩/১০

ওভার: ১৯.৫

জিম্বাবুয়ে ১৬৬/৬, ওভার: ২০

 

জয়ের সুবাস পাচ্ছে জিম্বাবুয়ে

১৩ বলে ২৯ রানের ছোট্ট ক্যামিও ইনিংস খেলে সাজঘরে ফিরলেন অভিষিক্ত শামীম হোসেন পাটোয়ারি। বাঁহাতি ব্যাটসম্যান কোনো জড়তা না দেখিয়ে ২২ গজে ঝড় তোলেন। ১৫তম ওভারে মাধেভেরেকে এলোমেলো করে ১৬ রান তুলেন শামীম। 

কিন্তু ১৬তম ওভারের প্রথম বলে তাকে থামিয়ে জিম্বাবুয়েকে আনন্দে ভাসান লুক জংওয়ে। ডানহাতি পেসারের বল ক্রস করতে গিয়ে লং অনে ক্যাচ দেন শামীম। ৩টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকান এ ব্যাটসম্যান। সঙ্গী হারানোর পর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি আফিফ হোসেনও। ২৪ রানে ফেরেন তিনি। বাংলাদেশ হারাল অষ্টম উইকেট।

দ্রুত উইকেট হারিয়ে চাপে বাংলাদেশ

দুই সিনিয়র সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ আগ্রাসন দেখাতে গিয়ে সাজঘরে ফিরলেন। তরুণ মেহেদী হাসানকে তিনে ব্যাটিংয়ের সুযোগ দিয়েছিল দল। কিন্তু সুযোগটি কাজে লাগাতে পারলেন না। তিনজনকেই আউট করেন বাঁহাতি স্পিনার ওয়েলিংটন মাসাকাদজা। মাত্র ১০ বলের ব্যবধানে সাজঘরে ফেরেন তিনজন। 

সাকিব ১২ ও মাহমুদউল্লাহ ৪ রান করেন। মেহেদীর ব্যাট থেকে আসে ১৫ রান। বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি কাজী নুরুল হাসান। চাতারার বল ডিপ স্কয়ার দিয়ে উড়াতে গিয়ে সীমানায় ক্যাচ দেন মাত্র ৯ রানে। ৬৮ রান তুলতেই ৬ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। বাংলাদেশের লক্ষ্য ১৬৭ রান।

৬০ বলে দরকার ১০৭ রান

সিরিজ জিততে শেষ ১০ ওভারে ১০৭ রান করতে হবে বাংলাদেশকে। ১৬৭ রানের লক্ষ্য তাড়ায় শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। ১০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে তুলে মাত্র ৬০ রান। শেষ দিকে ঝড়ো ব্যাটিং না হলে ম্যাচ হাতছাড়া হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাই প্রবল। 

দুই ওপেনারকে হারিয়ে চাপে বাংলাদেশ

১৬৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। নাঈম শেখ ও সৌম্য সরকার আগের দিন ১০২ রানের জুটি গড়লেও আজ তৃতীয় ওভারে দুজন সাজঘরে ফেরেন। মুজারাবানির করা ওভারে প্রথমে নাঈম (৫) বোল্ড হন। সৌম্য (৮) দৃষ্টিকটু শটে এক্সট্রা কভারে ক্যাচ দেন। ৬ ওভার শেষে বাংলাদেশের রান ২ উইকেটে ৪২। ক্রিজে ব্যাটিং করছেন সাকিব ও মেহেদী। 

বাংলাদেশের টার্গেট ১৬৭ রান

সিরিজ জিততে বাংলাদেশকে ১৬৭ রান করতে হবে। হারারেতে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে আগে ব্যাটিং করে জিম্বাবুয়ে ৬ উইকেটে ১৬৬ রান করে। ওপেনার ওয়েসলি মাধেভেরের ফিফটিতে বড় সংগ্রহ পেয়েছে স্বাগতিকরা। তার ক্যারিয়ারের তৃতীয় হাফ সেঞ্চুরির ইনিংসটি ছিল ৫৭ বলে ৭৩ রানের। ৫টি চার ও ৩টি ছক্কায় সাজান ইনিংসটি। 

প্রথম ১০ ওভারে ৭৭ রান তুলেছিল জিম্বাবুয়ে। শেষ ১০ ওভারে আগ্রাসন বাড়িয়ে তোলে ৮৯ রান। তাতে বড় কৃতিত্ব শেষের ব্যাটসম্যান রায়ান বার্লের। বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ১৯তম ওভারে সাইফ উদ্দিনকে চার-ছক্কায় উড়িয়ে ১৬ রান আদায় করেন। শেষ ওভারেই শরিফুলকে উড়ান ছক্কা।  তার ছোট্ট ক্যামিও ইনিংসটি ছিল ১৯ বলে ৩৪ রানের। ২টি করে চার-ছক্কা মারেন তিনি। 

শেষ ম্যাচে ১৫৩ রান তাড়া করে ৮ উইকেটে জিতেছিল বাংলাদেশ। এবারের লক্ষ্যটা আরেকটু বড় অতিথিদের। 

মাধেবেরের ফিফটি, শরিফুলের প্রথম উইকেট

বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে বেশ সতর্ক হয়ে ব্যাটিং করেছেন মাধেভেরে ও মায়ার্স। ৪৬ বলে ৫০ রানের জুটি গড়েন তারা। তৃতীয় উইকেটে তাদের গড়া জুটিতে এগিয়ে যাচ্ছিল জিম্বাবুয়ে। মাধেভেরে এ সময়ে ক্যারিয়ারের চতুর্থ হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন। বিপদজ্জনক হয়ে উঠা এ জুটি ভাঙেন শরিফুল। ডিয়ন মায়ার্স (২০) তার বল কাট করতে গিয়ে ডিপ পয়েন্টে ক্যাচ দেন। শরিফুল পেয়েছেন নিজের প্রথম উইকেট। ১৫ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ে রান ৩ উইকেটে ১১২। শেষ ৫ ওভারে কত করবে তারা? 

প্রথম ওভারে সাকিবের উইকেট

পাওয়ার প্লে’র শেষ ওভারে বোলিংয়ে এসে সাফল্য পেতে সময় নেননি সাকিব। জিম্বাবুয়ের আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান চাকাবাকে ফিরিয়েছেন বাঁহাতি স্পিনার। অফস্টাম্পের বাইরের ঝুলিয়ে দেওয়া বল উড়াতে গিয়ে এক্সট্রা কাভারে ক্যাচ দেন ৯ বলে ১৪ রান করা চাকাবা।

পাওয়ার প্লে’র ৬ ওভারে জিম্বাবুয়ে ২ উইকেট হারিয়ে তুলেছে ৪৮ রান। উইকেটে থাকা মাধেভেরে ও মায়ার্স সতর্ক হয়ে ব্যাটিং করছেন। ঝুঁকি না নিয়ে সিঙ্গেলস ও ডাবলসে এগোচ্ছে তাদের রান।

জিম্বাবুয়ের দারুণ শুরু

টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমে ভালো শুরু করেছে জিম্বাবুয়ে। দ্বিতীয় ওভারে উইকেট হারালেও রান তোলায় আগ্রাসন দেখাচ্ছেন মাধেভেরে ও চাকাবা। ৫ ওভার শেষে দলের রান ১ উইকেটে ৪১। প্রায় প্রতি ওভারেই আসছে বাউন্ডারি। পেসার শরিফুল ও স্পিনার মেহেদী নিজেদের প্রথম ওভারে খরচ করেন ১১ রান। মেহেদী বোল্ড করে সাজঘরে ফিরিয়েছেন মারুমানিকে।  

এক মিনিট নীরবতা পালন

বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার আমিনুল ইসলাম বিপ্লব বাবা হারিয়েছেন। গতকাল তার বাবা আব্দুল কুদ্দুস ৬২ বছর বয়সে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টির আগে দুই দলের ক্রিকেটার, ম্যাচ অফিসিয়াল ও টিম ম্যানেজমেন্ট এক মিনিটের নীরবতা পালন করেন। টসের সময় জিম্বাবুয়ে দলের অধিনায়ক সিকান্দার রাজা শোক প্রকাশ করেন। বিপ্লব বাংলাদেশ দলের সঙ্গে জিম্বাবুয়ে সফরে ছিলেন। বাবার মৃত্যুর খবর শুনে দেশের বিমান ধরেছেন তিনি।

মোস্তাফিজ আউট, তাসকিন ইন

লিটনের চোটে শামীম দলে প্রথমবার সুযোগ পাচ্ছেন। বাংলাদেশের একাদশে আরেকটি পরিবর্তন আনা হয়েছে। মোস্তাফিজুর রহমানকে বিশ্রামে রাখা হয়েছে। গোড়ালিতে হাল্কা চোট আছে তার।  দলে এসেছেন তাসকিন আহমেদ।

বাংলাদেশ একাদশ: মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), নাঈম শেখ, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, কাজী নুরুল হাসান, আফিফ হোসেন ধ্রুব, শামীম হোসেন পাটোয়ারি, শেখ মেহেদী হাসান, সাইফউদ্দিন, তাসকিন আহমেদ ও শরিফুল ইসলাম।

জিম্বাবুয়ে একাদশ: সিকান্দার রাজা (অধিনায়ক), ওয়েসলি মাধেভেরে, তাদিওয়ানাশে মারুমানি, রেগিস চাকাবা, ডিয়ন মায়ার্স, মিল্টন শুম্বা, রায়ান বার্ল, লুক জংউই, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা, টেন্ডাই চাতারা, ব্লেসিং মুজারাবানি।

শামীমের অভিষেক

লিটন দাস চোটের কারণে খেলতে পারছেন না। তার জায়গায় এসেছেন শামীম। বাংলাদেশের ৭১তম টি-টোয়েন্টি খেলোয়াড় হিসেবে অভিষেক হচ্ছে তার। 

টস

হারারেতে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও আগে ফিল্ডিং পেয়েছে বাংলাদেশ। টস জিতে জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক সিকান্দার রাজা ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। প্রথম টি-টোয়েন্টিতেও টস জিতে ব্যাটিং করেছিল জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশ ম্যাচ জিতেছিল ৮ উইকেটে। 

সিরিজ জয়ের মিশনে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এর আগে পাঁচটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছে। জিম্বাবুয়ে জিততে পারেননি একটিও। বাংলাদেশ জিতেছে দুইটি। ড্র হয়েছে তিনটি। 

হারারেতে আজ দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি জিতলে এক ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ নিশ্চিত করবে বাংলাদেশ। কাজটা তাদের জন্য কঠিন হওয়ার কথা নয়। বোলিং ও ব্যাটিংয়ে সম্প্রতি দারুণ ফর্মে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা। টেস্ট ও ওয়ানডেতে স্বাগতিকদের হোয়াইটওয়াশ করেছে বাংলাদেশ। আজ সেদিকেই নজর রেখে এগোবে অতিথিরা।

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়