Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৭ ১৪২৮ ||  ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

ওপেনার জয়ের জন্য প্রিন্সের বার্তা, ‘প্লে হার্ড অ্যান্ড পারফেক্ট’

চট্টগ্রাম থেকে ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৩৯, ২৫ নভেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৬:৫৯, ২৫ নভেম্বর ২০২১
ওপেনার জয়ের জন্য প্রিন্সের বার্তা, ‘প্লে হার্ড অ্যান্ড পারফেক্ট’

‘বোলারের যদি দুটি পরিকল্পনা থাকে, তোমার পরিকল্পনা থাকবে চারটি। প্রভাব বিস্তার করে খেলতে হবে। প্লে হার্ড অ্যান্ড পারফেক্ট। একটু আগে যে পুল শটটা খেলছ সেটা ছিল গুড ওয়ান। ও (ইয়াসিরকে দেখিয়ে) প্রায় একই ধরনের শট খেলেছে। দুজনেরটাই পারফেক্ট।’- গ্রানাইটের স্ল্যাবে মাহমুদুল হাসান জয়ের শর্ট বল পরীক্ষা নেওয়ার পর এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন ব্যাটিং কোচ অ্যাশওয়েল প্রিন্স।

শেষ দুই দিন ২১ বছর বয়সী এ ব্যাটসম্যানকে নিয়ে যে পরিমাণে কাজ হয়েছে তাতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে পাকিস্তানের বিপক্ষে তার মাথায় উঠতে যাচ্ছে টেস্ট ক্যাপ। তবে ঘরোয়া ও বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে যে পজিশনে ব্যাটিং করেছেন সেই বিবেচনায় তাকে নেওয়া হয়নি। যুব বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটারকে নিয়ে চমকপ্রদ তথ্যই দিলেন অধিনায়ক মুমিনুল হক, ‘ব্যাকআপ ওপেনার হিসেবে ওকেই নিয়েছি আমরা। যদি ও খেলে, তাহলে ওপেনার হিসেবেই খেলবে।’

আনুষ্ঠানিকভাবে বুধবার থেকে দলের সঙ্গে কাজ শুরু করেছেন বয়সভিত্তিক ও হাই পারফরম্যান্স ইউনিটের হয়ে দ্যুতি ছড়ানো জয়। সঙ্গে এবারের জাতীয় ক্রিকেট লিগে তার পারফরম্যান্স ছিল ঈর্ষণীয়। তবে পছন্দের পজিশন তিন ছেড়ে তাকে একধাপ উপরে আনা হচ্ছে। 

পাকিস্তানের একাদশে শাহীন আফ্রিদি, হাসান আলী ও ফাহিম আশরাফ। পেস ত্রয়ীয় মূল অস্ত্রই হবে শর্ট। বল নতুন হোক বা পুরোনো, শর্ট বলে সবচেয়ে বেশি ভোগে বাংলাদেশ। এজন্য গ্রানাইটের স্ল্যাবে প্রিন্সের সঙ্গে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সময় কাটিয়েছেন জয়। গ্রানাইট পাথরের স্ল্যাবে বল ফেলা হলে একটু বেশিই লাফায়। প্রিন্স বল থ্রোয়ার স্টিক দিয়ে বল থ্রো করেছেন, জয় বল দেখেশুনে বিচার করে খেলেছেন। কখনো কাট করেছেন। কখনো স্ল্যাশ। আবার কখনো ডাক করেছেন। কখনো আবার পুল করেছেন জোর করে। সব শটগুলোতে ছিল নিয়ন্ত্রণ। এজন্য নিয়মিত গুরু শিষ্যর প্রশংসাও শুনেছেন তরুণ এ ক্রিকেটার।

বুধবার সাদমান ইসলামের সঙ্গে নতুন বলে শুরুতেই নেটে যান জয়। আজও পূর্ব পাশে বোলারদের সামলানোর পর প্রিন্সের সঙ্গে তার নিবিড় অনুশীলন। টেস্ট ম্যাচের আগে যেসব প্রস্তুতি নেওয়া হয় সেসবের কাজই চলেছে আজ। অনুশীলন দেখে বোঝা গেছে, শর্ট বলে প্রতি আক্রমণ করে কিভাবে রান করা যায়, স্কোরিং অপশন খোলা রাখা যায় এবং বাউন্ডারি না মেরে দুই রান নিয়ে নিয়ে ইনিংস বড় করা যায়… সেসবের কাজ চলেছে। বলতে শোনা গেছে, ‘তোমার পুল শট কখনো কখনো গ্যাপে যাবে, কখনো যাবে না। গ্যাপে রান পাবে। কিন্তু আউটফিল্ড দ্রুত হলে চার পাবে। ধীর গতির হলে তোমাকে দুই রান করে নিতে হবে। এভাবে ইনিংস বড় করতে হবে। তোমার অ্যাটাকের অপশন খোলা রাখতে হবে।’

প্রিন্সের সঙ্গে সময়টা নিশ্চিতভাবেই উপভোগ করেছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। অনুশীলন শেষে দুজনকেই হাসিমুখে ড্রেসিংরুমের দিকে ফিরতে দেখা গেছে। অনুশীলনের দুটি সেশনেই শিষ্যর প্রতি আস্থা জন্মেছে প্রিন্সের। দেখার বিষয়, সুযোগ পেলে ব্যাটিং গুরুর আস্থার প্রতিদান দিতে পারেন কি না জয়।

চট্টগ্রাম/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়