ঢাকা     শনিবার   ২০ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৭ ১৪৩১

রোনালদোর সেলিব্রেশন করে বিপিএল শেষ শহিদুলের

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৫৭, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ১৫:৫৮, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
রোনালদোর সেলিব্রেশন করে বিপিএল শেষ শহিদুলের

টসের সময় অধিনায়ক শুভাগত হোম প্রথম জানালেন তাদের দলের অন্যতম সেরা পেসার শহিদুল ইসলাম নেই। কারণ, তিনি ব্যাখ্যা করেননি। স্রেফ জানিয়েছেন, শহিদুলের জায়গায় ফিরেছেন আরেক পেসার আল-আমিন হোসেন।

শহিদুল প্রথম পর্বের ১২ ম্যাচের ১১টিই খেলেছেন। পারফরম্যান্স খারাপ নয় যে, চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স তাদের এলিমিনেটর ম্যাচে ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে তাকে ছাড়া নামবে। কিন্তু খেলা শুরুর পর চট্টগ্রামের মিডিয়া ম্যানেজার বার্তা পাঠায়, শহিদুল ইনজুরিতে। এজন্য বিপিএল থেকে ছিটকে গেছেন। তাকে থাকতে হবে ১৫ দিনের বিশ্রামে।

তবে ওই বার্তায় ইনজুরি নিয়ে বাড়তি কোনো তথ্যও দেওয়া হয়নি। রাইজিংবিডির পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে পাওয়া যায় আসল খবর। 

চট্টগ্রামে প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে উইকেট পাওয়ার পর ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সেলিব্রেশন করতে গিয়ে দুই পায়ের লিগামেন্টে টান পড়ে শহিদুলের। গোল করলেই শূন্যে লাফিয়ে উঠেন পর্তুগিজ মহাতারকা। এবং মাটিতে নেমেই দু’হাত ছড়িয়ে এক বিশেষ ভঙ্গিতে দাঁড়িয়ে পড়বেন। মুখ থেকে বেরিয়ে আসবে ‘সিউ’ শব্দটা।

আর্জেটিনা ও লিওনেল মেসির পাড় ভক্ত হলেও রোনালদোর সেলিব্রেশন পছন্দ করেন শহিদুল। এর আগে নিজের সাফল্য উদযাপনে ‘সিউ’ সেলিবেশন করতে দেখা গেছে তাকে। কিন্তু চট্টগ্রামে ওই উদযাপনই তাকে ছিটকে দিয়েছে বিপিএল থেকে।

অথচ ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের শেষ ম্যাচের নায়ক ছিলেন তিনি। মিরপুরে মামুলি পুঁজি নিয়ে লড়াই করে শহিদুলের দারুণ বোলিংয়ে চট্টগ্রাম বরিশালকে হারায়। ওই ম্যাচে ১৩ রানে পেয়েছিলেন ৩ উইকেট। সব মিলিয়ে ১১ ম্যাচে ১১ উইকেট নিয়ে চট্টগ্রামের স্থানীয় বোলারদের মধ্যে সেরা সাফল্য তারই। যেখানে তার গড় ছিল ২৯.৭২, ইকোনমি ৮.৬০।

এই ম্যাচে আচমকা আরেকটি পরিবর্তনও আনে চট্টগ্রামে। প্রথম চার ম্যাচে চরম ব্যর্থ হওয়ার পর উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ইমরানুজ্জামানকে বাদ দেওয়া হয়। তাকে আজ ডু অর ডাই ম্যাচে ফেরানো হয়েছে। একাদশে বাদ পড়েছেন শাহাদাত হোসেন দিপু। শাহাদাত আহামরি ভালো না করলেও নিয়মিত খেলে আসছিলেন। মিরপুরে শুরুর ম্যাচেই তার ছিল ঝড়ো এক ইনিংস।

মূলত উইকেট কিপিংয়ের জন্য ইমরানুজ্জামানকে নেওয়া হয়েছে। চট্টগ্রামের হয়ে নিয়মিত উইকেটের পেছনে দায়িত্ব পালন করছিলেন টম ব্রুস। চট্টগ্রামে শেষ ম্যাচের আগে কিপিংয়ের সময় কাঁধে চোট পান ব্রুস। সেজন্য আজ কেবল ব্যাটসম্যান হিসেবেই খেলেছেন। তবে দুজনের কেউ-ই আজ রাখতে পারেননি অবদান। ইমরানুজ্জামান ৭ ও ব্রুস করেছেন ১৭ রান।

ইয়াসিন/আমিনুল

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়