ঢাকা, শুক্রবার, ৮ আষাঢ় ১৪২৬, ২১ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘বর্ণবাদী’ গান্ধীর মূর্তি সরালো ঘানা বিশ্ববিদ্যালয়

শাহেদ হোসেন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-১২-১৪ ১০:৪৩:৪০ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১২-১৪ ২:৩২:১৯ পিএম
Walton AC 10% Discount

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বর্ণবাদের অভিযোগে ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের নেতা মোহন দাস গান্ধীর মূর্তি ঘানার রাজধানী আক্রার ইউনিভার্সিটি অব ঘানার চত্বর থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। বুধবার এটি সরিয়ে নেওয়া হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি অনলাইন।

২০১৬ সালে মূর্তিটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেছিলেন ভারতের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট প্রণব মুখার্জি। প্রথম থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু ছাত্র-শিক্ষক ক্যাম্পাসে গান্ধীর মূর্তি মেনে নিতে পারেননি।

এর বিরুদ্ধে দায়ের করা পিটিশনে তারা বলেন, গান্ধী ছিলেন 'বর্ণবাদী'। তিনি কৃষ্ণাঙ্গদের ক্ষুদ্র দৃষ্টিতে দেখতেন, হেয় করতেন। তার মূর্তি সরিয়ে আফ্রিকার কোনো নেতার মূর্তি বসানো হোক। ওই সময় চাপের মুখে সরকার মূর্তিটি সরিয়ে নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিতে বাধ্য হয়।

ঘানা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের ছাত্রী নানা আদোমা আসারি বলেন, ‘ক্যাম্পাসে তার (গান্ধীর) মূর্তি স্থাপনের অর্থ হচ্ছে, তার বিশ্বাস বা মতবাদকে আমরা সমর্থন করি। কিন্তু তার বিশ্বাস যদি এমন (কথিত বর্ণবাদ) হয়, তাহলে তার মূর্তি ক্যাম্পাসে থাকতে পারে না।’

গান্ধী ছিলেন বিংশ শতাব্দীর অন্যতম আলোচিত রাজনীতিবিদ। ব্রিটিশ বিরোধী অহিংস আন্দোলনের জন্য তিনি খ্যাতি পেয়েছিলেন। যুবক বয়সে গান্ধী দক্ষিণ আফ্রিকায় বসবাস করেছেন এবং কাজ করেছেন। ওই সময় কৃষ্ণাঙ্গ আফ্রিকানদের নিয়ে তিনি কিছু বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন।

এসবে লেখায়, তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার কৃষ্ণাঙ্গদের ‘কাফির’ বলেছেন, যা সেদেশে একধরণের বর্ণবাদী গালি হিসাবে বিবেচনা করা হয়। এছাড়া তিনি বলেছেন, ভারতীয়রা কৃষ্ণাঙ্গদের চেয়ে জাতি হিসেবে শ্রেষ্ঠ।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ ডিসেম্বর ২০১৮/শাহেদ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge