ঢাকা     শনিবার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১১ ১৪২৭ ||  ০৮ সফর ১৪৪২

নির্মল সেনের জন্মদিনে গোপালগঞ্জে আলোচনা সভা

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৩৮, ৩ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
নির্মল সেনের জন্মদিনে গোপালগঞ্জে আলোচনা সভা

সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতা জগতের উজ্জল নক্ষত্র নির্মল সেনের ৯০তম জন্মদিন আজ (সোমবার-৩ আগস্ট)। এ উপলক্ষে সকালে নির্মল সেন স্মৃতি সংসদ ও নির্মল সেন স্কুল অ্যান্ড মহিলা কলেজের উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নির্মল সেনের ভাতিজা সাংবাদিক রতন সেন কঙ্কনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অলোচনা সভায় জেলা পরিষদ সদস্য নজরুল ইসলাম মুন্নু, শেখ লুফর রহমান ডিগ্রি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ গৌরাঙ্গ লাল চৌধুরী, সাংবাদিক মিজানুর রহমান বুলু, জ্ঞানের আলো পাঠাগারের মনিরুজ্জামান জুয়েল বক্তব্য রাখেন। এসময় প্রায়ত সাংবাদিক নির্মল সেনের জীবনাদর্শ তুলে ধরেন বক্তরা।

নির্মল সেনের ১৯৩০ সালের ৩ আগস্ট গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার দিঘীরপাড় গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত হিন্দু পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। নির্মল সেনের বাবার নাম সুরেন্দ্রনাথ সেন গুপ্ত ও মা লাবন্য প্রভা সেন গুপ্ত। পাঁচ ভাই ও তিন বোনের মধ্যে নির্মল সেন ছিলেন পঞ্চম। নির্মল সেনের রাজনীতিক জীবন শুরু হয় 'ভারত ছাড়ো' আন্দোলনের মাধ্যমে স্কুল জীবন থেকে। কলেজ জীবনে তিনি অনুশীলন সমিতির সক্রিয় সদস্য ছিলেন। দীর্ঘদিন শ্রমিক কৃষক সমাজবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সভাপতি ছিলেন। রাজনীতি করতে গিয়ে নির্মল সেনকে জীবনের অনেকটা সময় জেলে কাটাতে হয়েছে।

দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় সাংবাদিকতার মধ্যে দিয়ে নির্মল সেন তার সাংবাদিকতার জীবন শুরু করেন ১৯৫৯ সালে। তার পর দৈনিক আজাদ, দৈনিক পাকিস্তান, দৈনিক বাংলা পত্রিকায় সাংবাদিকতা করেন। তিনি বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন। নির্মল সেনের লেখা 'পূর্ব পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশ', 'মানুষ সমাজ রাষ্ট্র', 'বার্লিন থেকে মস্কো', 'মা জন্মভূমি', 'স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি চাই', 'আমার জীবনে ৭১-এর যুদ্ধ', ও 'আমার জবানবন্ধি' উল্লেখযোগ্য। ২০১৩ সালের ৮ জানুয়ারি সন্ধ্যায় নির্মল সেন মারা যান। মৃত্যুর আগে নির্মল সেন তার দেহ পিজি হাসপাতালে দান করে যান।

 

বাদল/এসএম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়