ঢাকা     বুধবার   ১৮ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ৪ ১৪২৯ ||  ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩

মানুষের চেয়ে প্রাণীকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:৩৯, ২৬ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ২১:৩৯, ২৬ জানুয়ারি ২০২২
মানুষের চেয়ে প্রাণীকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

গত বছরের আগস্টে তালেবান কাবুল দখলের পর আফগানিস্তান থেকে মানুষের পরিবর্তে প্রাণী উদ্ধারকে অগ্রাধিকার দিয়েছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। বুধবার ফাঁস হওয়া এক ইমেইল বার্তায় এ তথ্য জানা গেছে।

তালেবান কাবুল দখলের পরপর পশ্চিমাদের সঙ্গে কাজ করেছে বা তাদের সমর্থনে কাজ করা হাজার হাজার আফগান দেশ ছাড়ার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে। তাদের আশঙ্কা, তালেবান তাদের হত্যা করতে পারে। পশ্চিমা দেশগুলো দ্রুত কাবুল থেকে তাদের কর্মী ও অনুগত আফগানদের সরিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু করে। ওই সময় আফগানিস্তানে যুক্তরাজ্যের নাগরিক ফার্দিং পরিচালিত প্রাণী বিষয়ক দাতব্য সংস্থা পেন ফার্দিং’স নওজাদে থাকা প্রাণী ও কর্মীদের সরিয়ে আনার দাবি জানান ভক্তরা। পরে ফার্দিং ও তার ১৫০টি প্রাণীকে যুক্তরাজ্যে ফিরিয়ে আনা হয়। তবে আফগানিস্তানে ফেলে আসা হয় সংস্থার ৬০ কর্মীকে। পরে এসব কর্মীকে পাকিস্তানে পাঠানো হয়। অথচ ওই সময় কাবুল বিমানবন্দরে আটকা পড়েছিল হাজার হাজার আফগান।

ওই সময় অভিযোগ ওঠে, মানুষের চেয়ে প্রাণী উদ্ধারে বেশি গুরুত্ব দিয়েছিল জনসন সরকার। আর এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করেছিলেন খোদ জনসন। এ অভিযোগের বিষয়ে তার সম্পৃক্ততার বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে জনসন একে ‘অবাস্তব’ বলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন।

বুধবার ফাঁস হওয়া একটি ইমেইল বার্তায় দেখা গেছে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা লিখেছেন, ‘সাবেক মেরিন সেনা পরিচালিত দাতব্য সংস্থা নওজাদ বিপুল জনপ্রিয়তা পেয়েছে এবং প্রধানমন্ত্রী এর কর্মী ও প্রাণীদের নিয়ে আসার নির্দেশ দিয়েছেন।’

বিরোধী দল লেবার পার্টির ছায়া প্রতিরক্ষামন্ত্রী জন হিলে এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যা করছেন ও যা ভাবছেন সে বিষয়ে তিনি যে মিথ্যা বলেন তা আবারও ধরা পড়লো। যেসব আফগান আমাদের সামরিক বাহিনীর জন্য কাজ করেছেন তাদের ফেলে রেখে প্রাণী নিয়ে আসাকে কখনোই তার অগ্রাধিকার দেওয়া উচিত হয়নি।’

ঢাকা/শাহেদ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়