ঢাকা     বুধবার   ২৫ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৯ ||  ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩

চোখ বেশি কচলালে যা হয়

দেহঘড়ি ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:২০, ২০ এপ্রিল ২০২২   আপডেট: ১৭:৩৮, ২০ এপ্রিল ২০২২
চোখ বেশি কচলালে যা হয়

লম্বা সময় কোনো স্ক্রিনের দিয়ে তাকিয়ে থাকার পর কিংবা চোখে কিছু পড়লে অধিকাংশ মানুষই চোখ কচলান। চোখ কচলালে আপনার ভালো অনুভব হলেও এটি ক্ষতির কারণ হতে পারে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, কখনো কখনো হালকা চুলকানি থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য অল্প চোখ কচলানো বা চোখ ডলা ক্ষতিকর নয়, কিন্তু ঘন ঘন চোখ কচলানোর কারণে আপনার দৃষ্টিশক্তি নষ্ট হতে পারে কিংবা আপনাকে বার্ধক্যগ্রস্ত দেখাতে পারে।

চোখ কচলালে কেন ভালো অনুভব হয়?

যুক্তরাষ্ট্রের ডিউক আই সেন্টারের কম্প্রিহেনসিভ অপথ্যালমোলজির প্রধান অনুপমা বি. হর্ন বলেন, ‘সাধারণত চোখ চুলকালে বা চোখে জ্বালাতন হলে আমরা চোখ কচলানোর তাড়না অনুভব করি অথবা মানসিক চাপে ভুগলেও চোখ কচলানোর প্রবণতা তৈরি হতে পারে।’

তিনি যোগ করেন, ‘চোখ কচলানো অশ্রু উৎপাদনে প্ররোচিত করে যা শুষ্ক অথবা ক্লান্ত চোখকে আর্দ্র করতে সাহায্য করে এবং যেকোনো জ্বালাময় বস্তু দূর করে।’ তিনি আরো বলেন, ‘চোখ কচলানোর ফলে ‘ভ্যাগাস’ নামক স্নায়ু উজ্জীবিত হয়, যা হৃদস্পন্দন ধীর করে এবং অস্বস্তি কমায়।’ এ কারণে দ্রুত চোখ ডলার পর আপনি শিগগির ভালো অনুভব করতে পারেন, কারণ ডলন আপনার হৃদকম্পনকে ধীর করে আপনাকে শান্ত রাখে।

চোখ কচলানোর ক্ষতি

ডা. হর্ন বলেন, জোরে জোরে ও প্রায়সময় চোখ কচলালে আপনার চোখ ও পার্শ্ববর্তী গঠনপ্রণালী ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। যদি কোনো ধূলিকণা, চোখের পাতার লোম অথবা অপরিচিত পার্টিকেল চোখের পৃষ্ঠের ওপর পড়ে, তাহলে চোখ ডলনে আপনার কর্নিয়াতে স্ক্র্যাচ বা দাগ হতে পারে। স্ক্র্যাচযুক্ত কর্নিয়া ব্যাথাদায়ক হতে পারে। আপনার মনে হবে যে, চোখে কোনোকিছু বিঁধে আছে যা বের হচ্ছে না এবং প্রায়ক্ষেত্রে আপনার অশ্রুপাত, লালতা ও আলোক সংবেদনশীলতা হতে পারে। চোখে কিছু পড়লে চোখ কচলানোর পরিবর্তে পানির ঝাপটা দেওয়াই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

চোখ ডলনের অন্য একটি সমস্যা হচ্ছে, চোখের সাদা অংশের রক্তনালী ছিঁড়ে যাওয়া এবং এর ফলে আপনার চোখের সাদা অংশ লাল দেখাবে। চোখ ডলন আপনার চোখের আশপাশের ত্বককে কালো করতে পারে এবং লাল চোখের সঙ্গে কালো দাগ বা ডার্ক সার্কেলের কারণে আপনাকে ক্লান্ত ও বার্ধক্যগ্রস্ত দেখাতে পারে।

ইউনিভার্সিটি অব নিউ সাউথ ওয়েলসের অন্তর্গত স্কুল অব অপটোমেট্রি অ্যান্ড ভিশন সায়েন্সের অধ্যাপক চার্লস ম্যাকমোনিস বলেন, ‘যদি আপনার ইতোমধ্যে চোখের জটিল রোগ গ্লকোমা থাকে, তাহলে চোখ ডলনে এটি আরো খারাপ হবে।’ চোখের সামনে তরল জমার কারণে গ্লকোমা হয়ে থাকে, যা অপটিক নার্ভকে ড্যামেজ করে এবং শেষপর্যন্ত অন্ধত্ব সৃষ্টি করে। চোখ ডলনে সেখানে রক্তপ্রবাহ ফিরে আসা বিঘ্নিত হয়, যার ফলে নার্ভ ড্যামেজ হয় এবং চোখের দৃষ্টিশক্তি স্থায়ীভাবে হারিয়ে যায়।

মাইওপিয়া রোগে আক্রান্ত ব্যক্তি দূরের বস্তু ঝাপসা দেখেন এবং বর্তমান সময়ে এই দৃষ্টিশক্তির সমস্যায় ভুগছেন অসংখ্য মানুষ। আর এই সমস্যা আরও বাড়াতে পারে চোখ কচলানোর অভ্যাস।

যদি আপনি কন্টাক্ট লেন্স পড়ে থাকেন, তাহলে চোখ ডলনে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করুন। চোখ থেকে কন্টাক্ট লেন্স খুলে কর্নিয়াকে লেন্সের স্ক্র্যাচ থেকে রক্ষা করতে পারেন।

চোখে অস্বস্তিবোধ করলে করণীয়

চোখে অস্বস্তিবোধ করলে কচলানোর পরিবর্তে লুব্রিকেটিং আই ড্রপ ব্যবহার করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে নিশ্চিত হয়ে নিন। এছাড়া স্ট্রেস বা মানসিক চাপ থেকে মুক্তির জন্য চোখ না কচলে স্ট্রেস হ্রাসের ব্রিদিং টেকনিক অনুসরণ করতে পারেন।

তথ্যসূত্র: ম্যানস হেলথ

/ফিরোজ/

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়