ঢাকা, বুধবার, ১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

রশিদ খানকে ভয় পাওয়ার কিছু নেই: মোসাদ্দেক

ক্রীড়া প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৯-২১ ১১:৫৩:২৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৯-২২ ৮:৫১:৪৯ এএম

অষ্টম ওভারে রান থামাতে গিয়ে হ্যামস্ট্রিং চোটে পড়েন রশিদ খান।  মাঠ থেকে বেরিয়ে যান সাথে সাথে।

তিন ওভার পর মাঠে ফেরেন পায়ে চোট নিয়ে।  তখন বোলিং করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু অনফিল্ডে সময় না দেওয়ায় আম্পায়ার তাকে বোলিংয়ের অনুমতি দেননি। দুই ওভার পর রশিদ খান বোলিংয়ে ফেরেন।  ততক্ষণে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশের হাতে। কিন্তু পা খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে বোলিংয়ে ফিরে রশিদ প্রথম ওভারেই পেয়ে যান সাফল্য।  মাহমুদউল্লাহকে এলবিডব্লিউ করান। এক ওভার পর তার শিকার আফিফ। 

দ্রুত দুই উইকেট নিয়ে বাংলাদেশেকে চাপে ফেলেছিলেন। যদিও তার বোলিংয়ের শেষটা ভালো হয়নি। ১৮তম ওভারে তার ওভার থেকে ১৮ রান আদায় করে বাংলাদেশ।  মোসাদ্দেক চার মারার পর সাকিব পরপর দুই বলে চার, ছক্কা আদায় করেন।  এরপর সহজেই জয় পায় বাংলাদেশ। 

নিজের পূর্ণ সামর্থ্য দিয়ে বোলিং করতে পারেননি রশিদ খান।  যদি করতে পারতেন ফল কি ভিন্ন হতো? মোসাদ্দেক মানতে নারাজ।  তার মতে, রশিদ খানের ইনজুরি নিয়ে কোনো চিন্তা ছিল না বাংলাদেশের।  বরং ওই সময়টায় তাকে অ্যাটাকের সুযোগ নিতেই হতো ব্যাটসম্যানদের। 

‘ও ইনজুরড হলো কিন্তু এসেই উইকেট নিল।  এটা এখন বলতে পারবেন না যে, ইনজুরড ছিল বা ইনজুরড না থাকলে আরও ভালো বোলিং করতে পারত।  উইকেটে যদি স্পিন ধরে তাহলে ব্যাটিং করা সব সময়ই কঠিন।  এটা আসলে ক্রিকেট খেলা।  আমাদের সুযোগ নেওয়াই লাগত ওই সময়।  আমরা ওর ইনজুরি নিয়ে কোনো চিন্তা করিনি। ’ – বলেছেন মোসাদ্দেক হোসেন।

রশিদ খানে কোনো ভয় নেই জানিয়ে মোসাদ্দেক আরও বলেন,‘আমরা রশিদ খানকে ভয় পাই কখনো বলিনি। এখানে রশিদ খানকে ভয় পাওয়ার কিছু নেই।’

জয় পাওয়া ম্যাচে স্পিনাররা দাপট দেখিয়েছেন।  আফিফ হোসেন দুই উইকেট পেয়েছেন। সাকিবের শিকার একটি।  আবার মুজিব, রশিদ খানও পেয়েছেন উইকেট।  ২২ গজে ব্যাটসম্যানদের রান করা কঠিন ছিল বলে জানালেন মোসাদ্দেক।

‘আসলে বোলিংয়ে ৪-৫ ওভার যাওয়ার পর বুঝলাম এটা চট্টগ্রামের সহজাত উইকেটের মতো নয়।  উইকেটে স্পিন গ্রিপ করছিল।  রান করা কঠিন ছিল।  ব্যাটিং করছিলাম তখন বুঝছিলাম যে রান করা আরও কঠিন।  আমাদের ছয় ওভারে ২৮ রানে দুই উইকেট ছিল। ওখানে যদি আরও ১০ রান হতো তাহলে হয়তো ঠিকঠাক থাকতো।’ – যোগ করেন মোসাদ্দেকের।

 

চট্টগ্রাম/ইয়াসিন/নাসিম

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন