ঢাকা, বুধবার, ১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

দৃষ্টিহীনদের জাতীয় দাবা রোববার শুরু

ক্রীড়া প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১০-১০ ১০:৩২:৫৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১০-১০ ১০:৩২:৫৮ পিএম

ক্রীড়াবান্ধব প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় ও বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহযোগিতায় রোববার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ‘দৃষ্টিহীনদের জাতীয় দাবা প্রতিযোগিতা-২০১৯’। চতুর্থবারের মতো এই প্রতিযোগিতায় পৃষ্ঠপোষকতা করছে ওয়ালটন গ্রুপ। ন্যাশনাল ফেলোশিপ ফর দি অ্যাডভান্সমেন্ট অব ভিজ্যুয়ালি হ্যান্ডিক্যাপড (এনএফএভিএইচ) এর ব্যবস্থাপনায় এই প্রতিযোগিতা চলবে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত। ‘৫১তম বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস’ উপলক্ষ্যে মূলত এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে।

এই আয়োজন সম্পর্কে বিস্তারিত জানানোর জন্য আজ বৃহস্পতিবার দাবা ফেডারেশনের দাবা ক্রীড়াকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক (গেমস অ্যান্ড স্পোর্টস) এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) ও ন্যাশনাল ফেলোশিপ ফর দি অ্যাডভান্সমেন্ট অব ভিজ্যুয়ালি হ্যান্ডিক্যাপড (এনএফএভিএইচ) এর মহাসচিব মো. জাহাঙ্গীর আলমসহ অন্যান্যরা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় গেল বছর ৫০ জন দৃষ্টিহীন দাবাড়– অংশ এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিলেও এবার অবশ্য অংশগ্রহণকারীদের সংখ্যা বেড়েছে। এবারের এই প্রতিযোগিতায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ৭০ জন দৃষ্টিহীন দাবাড়ু অংশ নিচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলনে এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) বলেন, ‘ওয়ালটন গ্রুপ এর আগের তিন আসরের সঙ্গেও সম্পৃক্ত হয়েছিল। এবারও যথারীতি সম্পৃক্ত হয়েছে। ওয়ালটন গ্রুপ সবার সঙ্গেই কাজ করতে আগ্রহী। সমাজের বিভিন্ন ধরণের সুবিধবঞ্চিত মানুষদের নিয়ে আমরা কাজ করছি এবং করতে চাই। যাতে সমাজের প্রত্যেকটি ট্রাকের মানুষই খেলাধুলার মতো সুস্থ্য বিনোদনের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে পারে। দৃষ্টিহীনদের দাবা একটি ভিন্ন ধরণের আয়োজন। আমি এই প্রতিযোগিতার সর্বাঙ্গীন সাফল্য কামনা করছি।’

মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘ওয়ালটন গ্রুপ গেল তিন বছরের ন্যায় এবারও আমাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। তাদের পৃষ্ঠপোষকতায় দৃষ্টিহীনদের বিশেষ দাবা প্রতিযোগিতা শুরু হচ্ছে। চার বছর ধরে তারা আমাদের সহায়তা ও সহযোগিতা করে আসছে। সে জন্য তাদের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। আশা করছি ভবিষ্যতেও তারা আমাদের পাশে থাকবে ও তাদের সহায়তার পরিমাণ বাড়াবে। গেল বছর ৬০ জন দাবাড়– অংশ নিয়েছিল। এবারের এই প্রতিযোগিতায় কমপক্ষে ৭০ জন দৃষ্টিহীন দাবাড়ু অংশ নেবেন। আসলে আমাদের দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের বিনোদনের বিষয়টা খুবই উপেক্ষিত। আমরা বিনোদনটা উপভোগ করতে পারি না। ওয়ালটন গ্রুপ আমাদের বিনোদনের বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বসহকারে দেখছে। ওয়ালটনের মতো অন্যান্য কোম্পানিগুলোও যেন আমাদের বিনোদনের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখে এবং এই ধরণের প্রতিযোগিতার পাশে থাকে সেই আবেদন থাকল।’

এই প্রতিযোগিতার সহযোগিতায় রয়েছে ওয়ালটন গ্রুপের জনপ্রিয় ব্র্যান্ড মার্সেল। মিডিয়া পার্টনার এটিএন বাংলা। রেডিও পার্টনার রেডিও টুডে। আর অনলাইন পার্টনার দেশের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পেপার রাইজিংবিডি.কম।


ঢাকা/আমিনুল

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন