RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ৫ ১৪২৭ ||  ০৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

তামিমের সমর্থনে উজ্জীবিত ওপেনার মিরাজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৫৮, ২৯ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ২০:২৩, ২৯ নভেম্বর ২০২০
তামিমের সমর্থনে উজ্জীবিত ওপেনার মিরাজ

ফরচুন বরিশালের হয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের প্রথম দুই ম্যাচে ওপেনিং করেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। কিন্তু সুযোগটা কাজে লাগাতে পারছেন না। প্রথম ম্যাচে শূন্য, আর দ্বিতীয় ম্যাচে করেছেন এক রান। তবে অধিনায়ক তামিম ইকবালের ভরসা হারাচ্ছেন না এই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার।

টানা দুই ম্যাচ জিতে উড়তে থাকা মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীকে শনিবার মাটিতে নামিয়েছে বরিশাল। ৫ উইকেটে পেয়েছে প্রথম জয়। আত্মবিশ্বাস ফেরাতে এই জয় দরকার ছিল বললেন মিরাজ, ‘এখন খুব ভালো লাগছে এবং সবাই খুব আত্মবিশ্বাসী ছিল। প্রথম ম্যাচটা ওভাবে হারার পর আমাদের জেতাটা খুব দরকার ছিল এই ম্যাচে।’

ব্যাট হাতে ভালো করতে না পারায় দুঃখ আছে মিরাজের। কিন্তু তামিম তাকে সবসময় উজ্জীবিত রাখছেন বলে তিনি জানালেন, ‘ব্যাটিংয়ে ভালো করতে পারছি না, কিন্তু সবসময় কথা বলছি। কোচের সঙ্গেও কথা বলছি, তামিম ভাইয়ের সঙ্গেও। আমার জন্য বড় একটা সুযোগ যে তামিম ভাইয়ের সঙ্গে ওপেনিং করছি। আর দুইটা ম্যাচে হয়তো ক্লিক করতে পারিনি, কিন্তু আমি চেষ্টা করছি যে নিজেকে আরেকটু পরিপূর্ণভাবে খেলার। কীভাবে করলে ভালো হবে, নতুন বলে ব্যাটিং করার অভ্যাসটা ওইরকম ছিল... কিন্তু  অনেকদিন ওইরকম করা হয়নি। তারপরও অনুশীলনে যতটুকু সম্ভব সেটা করার চেষ্টা করছি।’

তামিমের সমর্থন পাওয়ার কথা জানালেন মিরাজ, ‘আমি তো সবসময় বলি, তামিম ভাই আমাকে সবসময় সমর্থন করে গেছেন। জাতীয় দলেও অনেক সমর্থন করেন সবসময়। এই টুর্নামেন্ট শুরু করার আগে আমাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। যেমন প্রথম ম্যাচ যখন আমরা হেরে গিয়েছিলাম, ব্যক্তিগতভাবে আমি তো আমার বোলিংটার জন্যই হয়তো এলোমেলো হয়েছিলাম। কিন্তু তামিম ভাই আমাকে সাহস যুগিয়েছেন।’

ওপেনিংয়ে ব্যর্থতার পরও চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত মিরাজ। এজন্য তার প্রেরণা এশিয়া কাপের ফাইনাল। দুবাইয়ে ২০১৮ সালের ওই ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে লিটন দাসের সঙ্গে ওপেনিংয়ে ১২০ রানের জুটি গড়েন তিনি। এছাড়া বিপিএলেও খুলনা টাইগার্সের হয়ে একাধিক ম্যাচে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ছিলেন। তিনি বলেছেন, ‘আমি তো কমবেশি ব্যাটিং করতে পারি। ওটা থেকেই আত্মবিশ্বাস এসেছে। তবে আমাকে সবচেয়ে আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে এশিয়া কাপের ফাইনাল। আমি নিজেকেও বিশ্বাস করাই যে হয়তো ওপরে ব্যাটিংটা করতে পারবো।’

দলের প্রত্যাশা পূরণের চ্যালেঞ্জ নিচ্ছেন মিরাজ, ‘দেখেন এটা (ওপেনিং) আমার জন্য বড় সুযোগ। আমার কাছ থেকে কিন্তু দলের অনেক বেশি প্রত্যাশা না, যেমনটা তারা ওপেনারের কাছে করে থাকেন। আমার কাছ থেকে হয়তো প্রত্যাশা যে টিমটা একটা ভালো অবস্থানে থাকবে, ৩০-৪০ রানের পার্টনারশিপ করা, ভালো একটা শুরু করা। এরকম ছোট ছোট প্রত্যাশা থাকবে। আমার কাছে মনে হয় আমি যদি তা পূরণ করতে পারি, সেটাই হবে আমার জন্য অর্জন।’

ঢাকা/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়