ঢাকা     বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১১ ১৪৩১

বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণার নামে নির্বাচনি প্রচারণা

বরগুনা প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৪০, ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩  
বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণার নামে নির্বাচনি প্রচারণা

বরগুনার আমতলী উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের গোজখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণার নামে নৌকা প্রতীকের প্রচারণা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম ছরোয়ার ফোরকান এমন অভিযোগ করেছেন। 

গুলিশাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আব্দুস সোবাহান লিটন এ প্রচারণা চালান। সভাপতির নির্দেশে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মতিউর রহমান, সহকারী শিক্ষকরা, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দিয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর পক্ষে স্লোগান ও লিফলেট বিতরণ এবং অভিভাবকদের নৌকায় ভোট দানে প্রতিশ্রুতি আদায় করেছেন। এমন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে মানুষের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

জানা গেছে, উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের গোজখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বৃহস্পতিবার বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়। ওই ফলাফল ঘোষণা উপলক্ষে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে উপস্থিত হন। ওই দিন দুপুর ১২টার দিকে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি গুলিশাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সোবাহান লিটন ও তার সহযোগীরা বিদ্যালয়ে যান। পরে তারা ফলাফল ঘোষণার আগেই বিদ্যালয় মিলনায়তনে বরগুনা-১ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর পক্ষে নৌকায় ভোট চান। পরে ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের দিয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মাঝে লিফলেট বিতরণ করেন ও স্লোগান দিতে বলেন। একই সঙ্গে অভিভাবকদের নৌকা প্রতীকে ভোট দিতে প্রতিশ্রুতি আদায় করেন।

এ ঘটনায় শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা নির্বাচনের দিন ভোট গ্রহণের দায়িত্ব পালন করবেন। এতে সুষ্ঠু ভোট গ্রহণে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হতে পারে ধারণা করছেন সচেতন নাগরিকরা।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিদ্যালয়ের কয়েকজন সহকারী শিক্ষক বলেন, সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকদের নির্দেশে লিফলেট বিতরণ করতে বাধ্য হয়েছি। আমাদের কিছুই করার ছিল না।  

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেছে, বার্ষিক ফলাফল জানতে বিদ্যালয়ে যাই। পরে বিদ্যালয়ের সভাপতি আব্দুস সোবাহান লিটনের নির্দেশে শিক্ষকরা আমাদের মাঝে নৌকার লিফলেট বিতরণ করেছেন। একই সঙ্গে আমাদের ও আমাদের অভিভাবকদের নৌকার পক্ষে স্লোগান দিতে বাধ্য করেন এবং অভিভাবকদেরকে নৌকার ভোট দিতে চাপ দেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন অভিভাবক বলেন, আমরা জানতাম না পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণার নামে নির্বাচনি প্রচারণা করবেন। বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখি বিদ্যালয় সভাপতি আব্দুস সোবাহান লিটন ও তার সহযোগীরা নির্বাচনি কার্যক্রম চালাচ্ছেন। তারা আরও বলেন, আমাদেরকে নৌকার ভোট দিতে চাপ দিয়েছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ভিডিওতে দেখা গেছে, গুলিশাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আব্দুস সোবাহান লিটন নৌকার পক্ষে ভোট চাইছেন। তার পাশে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মতিউর রহমান ও তার কয়েকজন সহযোগী বসে আছেন। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের নৌকার পক্ষে মিছিল দিতে নির্দেশ দিচ্ছেন। ওই ভিডিওতে আরও দেখা গেছে, বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর ছবি সম্বলিত লিফলেট বিতরণ করছেন। 

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মতিউর রহমান বলেন, পরীক্ষার ফলাফল দিয়ে আমি চলে এসেছি। তারপর কি হয়েছে তা আমি জানি না।
ভিডিওতে আপনার (প্রধান শিক্ষকের) উপস্থিতিতে সভাপতি নৌকার পক্ষে ভোট চাইছেন এবং সহকারী শিক্ষকরা লিফলেট বিতরণ করছেন এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধান শিক্ষক কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।

গুলিশাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আব্দুস সোবাহান লিটন নৌকা প্রতীকের লিফলেট বিতরণ ও স্লোগান দেওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, ভুল-ত্রুটি হলে ক্ষমা করে দিয়েন। আমরা আচরণবিধি মেনেই কার্যক্রম চালাচ্ছি।

কাঁচি প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আলহাজ্ব গোলাম ছরোয়ার ফোরকান বলেন, বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফলের নামে নির্বাচনি প্রচারণা আচরণবিধির লঙ্ঘন করেছেন। অভিভাবকদের নৌকায় ভোট দিতে চাপ দিচ্ছেন। এর বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাই। 

বরগুনা জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, খোঁজ নিয়ে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইমরান/ফয়সাল

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়