ঢাকা     শুক্রবার   ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৬ ১৪৩১

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যালট ছিনিয়ে সিল মারার অভিযোগ

ঝালকাঠি প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৫১, ৭ জানুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ১৯:৫২, ৭ জানুয়ারি ২০২৪
ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যালট ছিনিয়ে সিল মারার অভিযোগ

ঝালকাঠি-২ (সদর-নলছিটি) আসনে নলছিটি উপজেলার মগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনামুল হক শাহীনের বিরুদ্ধে প্রিজাইডিং কর্মকর্তার কাছ থেকে ৫৪টি ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়ে সিল মারার অভিযোগ উঠেছে। রোববার (৭ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মগড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঘটনাটি ঘটে।

এ বিষয়ে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা মো. মোফাজ্জেল হোসেন হাওলাদার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারি রিটানিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। 

অভিযোগে মোফাজ্জেল হোসেন উল্লেখ করেন, মগড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রের ৩ নম্বর বুথে নলছিটির মগড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রিজাইডিং কর্মকর্তার কাছ থেকে ৫৪টি ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়ে সিল মারেন। উল্লেখিত ব্যালট বহিঃ নম্বর ২০৬৫। এতে সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ বন্ধ ছিল। 

প্রিজাইডিং কর্মকর্তা মোফাজ্জেল হোসেন হাওলাদার বলেন, মগড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমার কাছ থেকে ৫৪টি ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়ে একটি প্রতীকে সিল মারেন। আমি বিষয়টি সহকারী রিটানিং কর্মকর্তাকে লিখিত আকারে জানিয়েছি। 

তিনি আরও বলেন, সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ বন্ধ ছিল কেন্দ্রটিতে। পরে আবারো ভোটগ্রহণ চালু হয়। জেলা রিটানিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক ফারাহ গুল নিঝুম এবং পুলিশ সুপার আফরুজুল হক ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে আবার ভোট গ্রহণ শুরু করার নির্দেশ প্রদান করেন। 

নলছিটি মগড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এনামুল হক শাহীন বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমার সম্মানহানী করতেই এই অভিযোগ করা হয়েছে। 

জেলা রিটানিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক ফারাহ গুল নিঝুম বলেন, মগড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রে জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগে দুপুর পর্যন্ত ভোট গ্রহণ বন্ধ ছিল। পরে আবার ভোটগ্রহণ চালু করা হয়। এ ঘটনায় তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অলোক/মাসুদ

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়