Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৮ শা'বান ১৪৪২

হোম মেইড খাবারের উদ্যোক্তা আশা

সাজেদুর আবেদীন শান্ত || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:২৫, ৪ মার্চ ২০২১  
হোম মেইড খাবারের উদ্যোক্তা আশা

কানিজ ফাতেমা আশা, থাকেন ঢাকার লালবাগে। করোনা মহামারির কারণে এইচএসসিতে অটোপাশ করেন এবার। আশারা দুইভাই এক বোন। তার মা হোসনে আরা বেগম একজন সরকারি চাকরিজীবী।

আশা বলেন, ‘‘আমি আমার ছোট্ট জীবনে অনেক সমস্যার মুখোমুখি হয়েছি। আমার বাবা ছিলেন কিডনি রোগী। নিয়মিত ডায়ালাইসিস করাতে হতো। হাঁটা-চলা করতে পারতেন না, পুরোপুরি বিছানায় পড়ে ছিলেন তিনি। এভাবেই চলছিল আমাদের সংসার কিন্তু হটাৎ করে ২০১৫ সালে আমার বাবা মারা যান। বাবা মারা যাওয়ার পর আমি খুব একা হয়ে পড়ি এবং মানসিকভাবে ভেঙে পড়ি। 

এরপর ২০১৮ সালে এসএসসিতে অধ্যয়নরত অবস্থায় এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে আমার বিয়ে হয়। ভালোই চলছিল আমাদের সংসার। করোনায় যখন পুরো পৃথিবী থমকে দাঁড়ায়, তখনই পৃথিবীতে আসে আমাদের প্রথম সন্তান। আর এসময় লকডাউন থাকার কারণে আমার স্বামীর ব্যবসা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। 

পরিবারের সদস্যরা সবাই বাড়িতে থাকায় এবং আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হওয়ার জন্য আমি সেই সময়কে কাজে লাগাতে চেয়েছি। তাই আমি উদ্যোক্তা জীবনের পথে হাঁটি।’’

আশা আরো বলেন, ‘রান্নাকে ভালোবাসতাম এবং খুব জলদি যেকোনো ধরনের খাবার রান্না করতে পারতাম আমি। রান্না শেখার তাগিদ ছিল খুব বেশি। কারণ, রান্নাটা শেখা আমার বাবার কাছ থেকে। তাই আমি ঠিক করি হোম মেইড খাবার নিয়ে কাজ করবো। তারপর অনলাইনে ‘Ayash's Kitchen’ নামে ফেসবুক পেজ খুলি এবং সেখান থেকে হোম মেইড খাবার বিক্রি করি।’

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমি আমার হোম মেইড খাবারের গুণগত মান ধরে রাখতে চাই। আমার স্বপ্ন আমার হোম মেইড খাবারগুলো একটা বড় পর্যায়ে গিয়ে সাফল্য পাবে এবং অনলাইনে প্রতিষ্ঠিত ও বিশ্বস্ত হবে।’

লেখক: ফিচার লেখক ও গণমাধ্যমকর্মী।

ঢাকা/মাহি 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে