Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৮ ||  ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

‘২৪ টা ঘণ্টা মেয়ের লাশটা পড়ে ছিলো’

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:১৮, ৯ জুলাই ২০২১   আপডেট: ২২:২১, ৯ জুলাই ২০২১
‘২৪ টা ঘণ্টা মেয়ের লাশটা পড়ে ছিলো’

পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে ১৪ বছরের ফাতেমা দ্বিতীয়। অভাবে সংসারে গিয়েছিল রোজগারে।  কিন্তু আগুনের লেলিহান শিখা বাঁচতে দেয়নি ফাতেমাকে। নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের কর্ণগোপ এলাকায় হাসেম ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড কারখানায় আগুনে পুড়ে মারা যায় সে।

শুক্রবার (৯ জুলাই) সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মেয়ের ছবি হাতে নিয়ে আহাজারি করছিলেন ফাতেমার বাবা সুজন মিয়া। কথা হয় এ প্রতিবেদকের সঙ্গে।

রিকশাচালক সুজন মিয়া বলেন, ‘গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ। রূপগঞ্জের নতুনবাজার এলাকায় তারা ভাড়া থাকি। অভাবে সংসারে মেয়েটাকে চাকরিতে দিয়েছিলাম। তিন বছর ধরে সেখানে চাকরি করে। ঘটনার দিন সকাল ৮টায় অফিসে ঢুকছে। আর বের হয়নি। ৪র্থ তলায় কাজ করতো।’

তিনি বলেন, ‘৫টার সময় আগুন লাগার খবর পাই। সাথে সাথে সেখানে ছুটে যায়।  কিন্তু আমাদের গেটের ভিতর ঢুকতে দেয়নি।  তালা দিয়ে রাখছে গেটে। গেইট খুলে দিলে এতগুলো মানুষ মারা যেতো না। আমার মেয়েটা বেঁচে থাকতো। কিন্তু না তার করা হয়নি।  ২৪টা ঘণ্টা আমার মেয়ের লাশ এভাবে পড়ে ছিল।’

বৃহস্পতিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের কর্ণগোপ এলাকায় হাসেম ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে ৫২ জন প্রাণ হারায়।

/মামুন/এসবি/

সম্পর্কিত বিষয়:

ঘটনাপ্রবাহ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়