ঢাকা     রোববার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ২০ ১৪২৯ ||  ০৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

‘অধিনায়কত্বের চ্যালেঞ্জ নিয়েছি বলে এখানে বসে আছি’

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:১৭, ৮ ডিসেম্বর ২০২১  
‘অধিনায়কত্বের চ্যালেঞ্জ নিয়েছি বলে এখানে বসে আছি’

অনাকাঙ্খিতভাবে মুমিনুল হক পেয়েছিলেন টেস্ট অধিনায়কত্ব। কিন্তু তাকে ভবিষ্যতের নেতা ভেবে নেতৃত্ব লম্বা সময়ের জন্য দেওয়া হয়। কিন্তু যা ভেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল তা হীতে বিপরীত হচ্ছে।

মুমিনুলের অধিনায়কত্বের রেকর্ড একেবারেই বিবর্ণ। ১১ ম্যাচে ২টিতে জয়। ৮টিতে হার ও ১টি ড্র। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে দুই আসরেই যাচ্ছেতাই অবস্থা। নিজেরও ফর্ম ঢিলেঢালা। সতীর্থদের থেকেও পারফরম্যান্স আদায় করতে পারছেন না। এমন পরিস্থিতিতে অধিনায়কত্ব করা কতটা কঠিন? অধিনায়কত্ব কি উপভোগ করছেন তিনি?

পাকিস্তানের বিপক্ষে ঢাকা টেস্ট হারের পর মুমিনুলকে এমন প্রশ্ন করা হয়েছিল। হাসিমুখেই মুমিনুল উত্তর দিয়েছেন, না না! কঠিন না। আমার মনে হয় চ্যালেঞ্জিং। দেখেন আমি চ্যালেঞ্জ নিয়েছি বলে এই সিটে বসে আপনাদের সঙ্গে কথা বলছি। সবাই এই চ্যালেঞ্জ নিতে পারে না। দল যখন এরকম অবস্থায় যায় তখন গুরুত্বপূর্ণ কীভাবে আপনি এটা দেখেন। কীভাবে রিয়েক্ট করেন। এটা আমার জন্য চ্যালেঞ্জের, সামনে হয়ত আরও চ্যালেঞ্জ আছে। আমি ইতিবাচকভাবে দেখি।

শুধু মুমিনুলের অধিনায়কত্বই নয়, তার দলের ক্রিকেটাররা টেস্ট কিভাবে খেলতে হয় সেটা জানেন কিনা সেই প্রশ্ন উঠছে হতশ্রী হারের পর। মাত্র দুদিনের খেলায় ইনিংস ব্যবধানে হার কিভাবে সম্ভব? বোলাররা বিবর্ণ। ব্যাটসম্যানরা দায়িত্ব নিয়ে পারছেন না। শারীরিক ভাষাতেও নেই প্রাণ। সাদা পোশাকে এমন পারফরম্যান্সের পর খেলোয়াড়দের নিবেদন, তাড়না নিয়ে প্রশ্ন উঠা স্বাভাবিক।

মুমিনুল হতাশ না হয়ে খেলোয়াড়দের পাশেই দাঁড়ালেন, আপনার কাছে কি মনে হয়? (হাসি) আমারতো মনে হয় জানে। সবাই সামর্থ্যবান। আমি আপনার সাথে একমত না যে টেস্ট খেলার যোগ্য না। অবশ্যই তাদের টেস্ট খেলার যোগ্যতা আছে দেখেই টেস্ট খেলে।

এর আগে বাজেভাবে টেস্ট হারের পর নতুন করে দল সাজানোর কথা বলেছিলেন মুমিনুল। চট্টগ্রামে বলেছিলেন, নতুনদের দিয়ে না হলে পুরোনোদের ফেরানো উচিত। তবে মুমিনুল এবারও এমন কথাই বললেন। ফল নিজেদের পক্ষে আনার জন্য পরিবর্তনের কথা বললেন।

ইয়াসিন/কেআই

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়