RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৮ নভেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৪ ১৪২৭ ||  ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

রায়হান হত্যার ঘটনা অপ্রত্যাশিত, এজন্য আমি লজ্জিত

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০০:২৭, ২৮ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ০৮:১৯, ২৮ অক্টোবর ২০২০
রায়হান হত্যার ঘটনা অপ্রত্যাশিত, এজন্য আমি লজ্জিত

সিলেটের বন্দর বাজার ফাঁড়িতে নির্যাতনে রায়হান আহমদের মৃত্যুর ঘটনাকে অনপ্রিভেত এবং অপ্রত্যাশিত ঘটনা বলে মন্তব্য করেছেন সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের নতুন পুলিশ কমিশনার নিশারুল আরিফ।

এ ঘটনার সাথে পুলিশের যেসব কর্মকর্তা-কর্মচারী জড়িত আছে তাদের এমন কর্মকান্ডে তিনি লজ্জিত।
হত্যায় অভিযুক্ত এসআই আকবরসহ কোন অপরাধীই ছাড় পাবেন না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) রাতে নগরের আখালিয়ার নেহারিপাড়া এলাকায় নিহত রায়হানের বাড়িতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে নতুন কমিশনার নিশারুল আরিফ রায়হানের মা সালমা বেগমের সাথে কথা বলেন।

এ সময় জড়িতদের সঠিক বিচার করা হবে এবং সব আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার করা হবে বলেও রায়হানের মাকে আশ্বস্ত করেন। পরে বাড়ির আঙ্গিনায় সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন তিনি। তিনি এ বিষয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবও দেন।

তিনি বলেন, ‘আমি সিলেট এসেই প্রথমে রায়হানের মায়ের সাথে দেখা করতে এসেছি। তার সাথে কথাও বলেছি। যে ঘটনা ঘটেছে, তা অনপ্রিভেত, অপ্রত্যাশিত। পুলিশ কর্মকর্তা-কর্মচারী যারা জড়িত আছে তাদের এই কর্মকান্ডে আমি লজ্জিত।’

তিনি বলেন, ‘যারা অপরাধী তারা অপরাধী। তারা কোন বাহিনী তা কোন বিষয় নয়। অপরাধী যেই হোক সে অপরাধী। এই অপরাধীকে বিচারের আওতায় আনা হবে। পরিবারের সদস্যদের দাবী মূল আসামীদের গ্রেপ্তার করা। আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করব।’

পলাতক আকবর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এসআই আকবরকে গ্রেপ্তার করতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সকল ইউনিট কাজ করছে। আমরাও সর্বাত্মক চেষ্টা করছি। তবুও জনসাধারণের মধ্যে কেউ আকবরের অবস্থান শনাক্ত করতে পারেন তাহলে দ্রুত আমাদের সাথে যোগাযোগ করবেন।’

এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটে ইউ-এস বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে সিলেট এসে পৌঁছেন নতুন এই কমিশনার। বিমানবন্দরে এসএমপি’র কর্মকর্তারা তাকে স্বাগত জানান। পরে তিনি সেখান থেকে হযরত শাহজালাল (র.) দরগাহ জামে মসজিদে যান। সেখানে এশার নামাজ আদায় করেন। পরে হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার জিয়ারত করেন। মাজার জিয়ারতের পরই তিনি রায়হানের বাড়িতে যান।

উল্লেখ্য, গত ১১ অক্টোবর (রোববার) ভোরে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে রায়হানের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় কোতোয়ালি মডেল থানায় অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন নিহতের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার। ওই ফাঁড়ি ইনচার্জসহ ৪ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত এবং ৩ জনকে প্রত্যাহার করা হয়।  মামলাটি এখন তদন্ত করছে পিবিআই।

নোমান/নাসিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়