ঢাকা     শনিবার   ১৩ জুলাই ২০২৪ ||  আষাঢ় ২৯ ১৪৩১

আচরণবিধি লঙ্ঘন

নৌকার প্রার্থীকে রাজাকার বলায় স্বতন্ত্র প্রার্থীকে শোকজ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৪৬, ৪ জানুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ১৭:৫৭, ৪ জানুয়ারি ২০২৪
নৌকার প্রার্থীকে রাজাকার বলায় স্বতন্ত্র প্রার্থীকে শোকজ

সেলিনা ইসলাম ও নুর উদ্দিন চৌধুরী

লক্ষ্মীপুর-২ আসনে নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন করায় ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিনা ইসলামকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে নির্বাচনি অনুসন্ধান কমিটি।

বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) বিকেলে নির্বাচনি অনুসন্ধান কমিটি এবং যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ (১ম আদালত) ফারহানা ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ নির্দেশ দেন। চিঠিতে আগামীকাল ৫ জানুয়ারির মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য বলা হয়েছে।

নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ২০২৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়নকে ‘রাজাকার পরিবারের’ সদস্য বলে মন্তব্য করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিনা ইসলাম। তার এই বক্তব্য গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। 

নোটিশে বলা হয়, পত্রিকায় প্রকাশিত এ সংবাদ সত্য হলে তা স্পটত: নির্বাচনের আচরণবিধি লংঘন। পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ বিষয়ে তদন্ত করে কেন নির্বাচন কমিশনে প্রতিবেদন পাঠানো হবে না সেই মর্মে আগামী ৫ জানুয়ারির মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ দেওয়া হলো।
ওই দিনের একটি ভিডিও বক্তৃতায় দেখা যায়, লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর-সদর আংশিক) আসনের সংসদ সদস্য প্রার্থী সেলিনা ইসলাম বলেছেন, মানুষ বলাবলি করছে- ওনারা বংশগতভাবে রাজাকার ফ্যামিলি থেকে আসছে। সবাই বলাবলি করে, আমি এ এলাকার বউ। আমি তো জানি না। তার চৌদ্দ গুষ্টি নাকি রাজাকার ফ্যামিলি। এরকম মানুষ কীভাবে একটা দলে (আওয়ামী লীগ) কাজ করতে পারে? বঙ্গবন্ধুর দল পবিত্র দল, রক্তের বিনিময়ে এই দল পাইছে। এই দলে এরকম মানুষ থাকা উচিত না, আমার মনে হয়।

নির্বাচনি আচরণবিধির ১১ এর (ক) ধারায় বলা আছে, নির্বাচনি প্রচারণাকালে ব্যক্তিগত চরিত্র হনন করিয়া বক্তব্য বা কোনো ধরনের তিক্ত বা উস্কানিমূলক, মানহানিকর বক্তব্য প্রদান করিতে পারিবে না। তাই সেলিনার এমন বক্তব্যে আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়েছে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।

জাহাঙ্গীর/ফয়সাল

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়