ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১১ ১৪৩১

গাজীপুরের চন্দ্রা ও চান্দনায় থেমে থেমে চলছে গাড়ি

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:১১, ৯ এপ্রিল ২০২৪   আপডেট: ১২:৪১, ৯ এপ্রিল ২০২৪
গাজীপুরের চন্দ্রা ও চান্দনায় থেমে থেমে চলছে গাড়ি

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুরের চন্দ্রা ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের চান্দনা চৌরাস্তা, ভোগরা বাইপাস ও আশেপাশের এলাকায় যানজট পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে। এসব এলাকায় এখন থেমে থেমে চলছে প্রতিটি গাড়ি। 

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) সকাল থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চন্দ্রাতে ঘরমুখো মানুষের ভিড় দেখা গেছে। যাত্রীর তুলনায় পর্যাপ্ত যানবাহন না পেয়ে অনেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রাক, কাভার্ডভ্যান ও বাসের ছাদে করে যাচ্ছেন। এই সুযোগে স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় গাড়িভাড়া ক্ষেত্রবিশেষে দ্বিগুণেরও বেশি দাবি করছেন পরিবহন সংশ্লিষ্টরা। ঘণ্টার পর ঘণ্টা স্টেশনে অপেক্ষা করতে হচ্ছে যাত্রীদের। 

চন্দ্রা ত্রিমোড় থেকে নবীনগর রোডে দীর্ঘ যানবাহনের সারি দেখা গেছে। এসব পরিবহন চলছে ধীরগতিতে। এছাড়াও কালিয়াকৈর মুখী এবং চন্দ্রা ফ্লাইওভারেও যানবাহনে চলছে থেমে থেমে। গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা ও ভোগরা বাইপাসে যানবাহনের চাপ রয়েছে। মহাসড়কের নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা রক্ষায় পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ সদস্য কাজ করছেন। চালকদের বিশৃঙ্খল অবস্থার কারণে দায়িত্ব পালনে তারা হিমশিম খাচ্ছেন।

পুলিশ, যাত্রী ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গতকাল সোমবার গাজীপুরসহ আশপাশের এলাকার শিল্পকারখানা ছুটি ঘোষণা হলে দুপুরের পর থেকে মহাসড়কে ব্যাপকভাবে ঘরমুখী মানুষের ঢল নামে। অতিরিক্ত মানুষ আর যানবাহনের চাপে বিকেল থেকেই শুরু হয় যানজট। ইফতারের পর সেই যানজট আর মানুষের ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করে। এরপর থেমে থেমে যানবাহন চললেও মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত একই অবস্থা দেখা যায় মহাসড়ক দুটিতে। আজ সকল ৯ টার পর থেকে মহাসড়কে যানবাহন চলাচল কিছুটা স্বাভাবিক হলেও কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রা ও আশপাশ এবং গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা, ভোগাড়সহ আশপাশের এলাকায় থেমে থেমে যানবাহন চলাচল করছে। এসব এলাকায় আজও শত শত ঘরমুখী মানুষের ভিড় দেখা গেছে। তবে, তারা চাহিদা মতো পরিবহন পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেছেন। এছাড়া এই সুযোগে কিছু অসাধু পরিবহন ব্যবসায়ী, চালক ও সহযোগীরা যাত্রীদের কাজ থেকে আদায় করছে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া।

গাজীপুর মেট্রোপলিটনের উপ পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মো. আলমগীর হোসেন জানান, গতকাল রাতে যানজট ছিল। রাত ২টার পর আমরা যানজট নিয়ন্ত্রণে আনি। সকাল থেকে আবার যানবাহনের চাপ বেড়ে যায়। এখন চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। 

নাওজোড় হাইওয়ে পুলিশের ওসি মো. শাহাদাত হোসেন বলেন, চন্দ্রাকে কেন্দ্র করে সারারাত যানবাহনের ধীরগতি থাকলেও সকালে কিছুটা কমতে শুরু করেছে। এখনও আশপাশে যানবাহনের সাড়ি থাকলেও থেমে থেমে যানবাহন চলছে। বিকেলের মধ্যে চাপ অনেকটা কমে যাবে। 

রেজাউল/মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়