ঢাকা     বুধবার   ২৯ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

ঈদের ছুটিতে বাসার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে যা করবেন

লাইফস্টাইল ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:২৯, ৩ এপ্রিল ২০২৪   আপডেট: ১০:৪০, ৩ এপ্রিল ২০২৪
ঈদের ছুটিতে বাসার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে যা করবেন

ঈদের আনন্দ পরিপূর্ণ হওয়ার সঙ্গে আপনার সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়টি জড়িত। বাসা থেকে দূরে কোথাও যেতে হলে বাসার নিরাপত্তাও নিশ্চিত করে যেতে হবে। এ সময় লোকজনহীন বাসাটিতে চুরির ভয় বেড়ে যায়। আপনি দূরে থাকলেও আপনার বাসাটি যাতে নিরাপদ থাকে সেজন্য ঈদযাত্রার প্রস্তুতি হিসেবে আপনার কিছু করণীয় রয়েছে।

বাসার প্রতিটি দরজা-জানালা ভালোভাবে বন্ধ রাখুন: আমাদের বিছানাপত্র সাধারণত জানালার পাশে থাকে। জানালা খোলা থাকলে বৃষ্টির পানি প্রবেশ করে বিছানার তোশক নষ্ট করে দিতে পারে। তাছাড়া জানালা খোলা থাকলে এর গ্রিল সহজে কেটে ঘরের ভেতর চোর ঢুকতে পারে। এক কথায় ঘরের প্রতিটি দরজা আলাদা আলাদাভাবে বন্ধ করে দিতে হবে। এতে বাসায় অনাকাঙিক্ষত কেউ প্রবেশ করলেও সে যাতে এক রুম থেকে আরেকটি রুমে সহজে প্রবেশ করতে না পারে, এজন্য হলেও প্রতিটি দরজা-জানালা বন্ধ করে যেতে হবে।

ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার ব্যবস্থা: দূরে থেকেও বাসার সবকিছুর দেখভাল নিজে করার জন্য বাসায় ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার ব্যবস্থা করতে পারেন।  আর তা যদি সম্ভব না হয়, ঈদের ছুটিতেও যারা বাসায়ই থাকছেন, এমন প্রতিবেশীকে বলে যেতে পারেন; তিনি যেন আপনার বাসার দিকে একটু খেয়াল রাখেন।  সেক্ষেত্রে প্রতিবেশী বিশ্বস্ত না হলে তারও দরকার নেই। বাড়িওয়ালার সঙ্গে কথা বলে জেনে নিন ঈদে বাসার নিরাপত্তার দায়িত্বে কে থাকছেন? তার যোগাযোগ নম্বর আপনার কাছে রাখুন। এমনকি বাড়িওয়ালাকেও বলে যান।
 
মূল্যবান সামগ্রী: মূল্যবান জিনিসপত্র ব্যাংকের ভল্টে রেখে যেতে পারেন। বাসায় আলমারিতে রাখলে, আলমারি যে ঘরে থাকে সেই ঘরের দরজা-জানালা ভালোভাবে বন্ধ করে যাবেন। আলমারিতে অবশ্যই তালা মারবেন, এবং চাবি নিজের সঙ্গে নিয়ে যাবেন। মূল্যবান জিনিসগুলো জ্যাকেট বা অন্য কোনো কাপড়ে মুড়িয়ে তারপর আলমারিতে রাখুন। যেন এক দেখাতেই সেগুলো না পাওয়া যায়।

পোষ্য: বাসায় পোষ্য প্রাণী, অ্যাকুরিয়ামে মাছ থাকলে বিশ্বস্ত বন্ধু বা প্রতিবেশীর কাছে প্রয়োজনীয় খাবার-দাবারসহ রেখে যেতে পারেন। এ ছাড়া অর্থের বিনিময়েও অনেকে পোষ্য প্রাণী দেখভাল করে তাদের কাছে রেখে যেতে পারেন। পোষা বিড়াল থাকলে নিজেদের সঙ্গে নিয়েও যেতে পারেন। 

গাছ: বাসায় গাছ থাকলে বাড়িওয়ালাকে বলে গাছগুলো ছাদে অথবা দারোয়ান বা গার্ডের দায়িত্বে রেখে যেতে পারেন। এক কথায় বাসার নিরাপত্তার দায়িত্বে যিনি থাকবেন তার কাছে রেখে যান।

আরও যা করতে হবে:

গ্যাসের চুলা ভালোবাসে বন্ধ করুন। মিটার সংযুক্ত থাকলে সুইচটি অফ করে যান।

বারান্দায় কোনো পোশাক রেখে যাবেন না। 

ফ্যান, বাল্ব এগুলোর সুইচ অবশ্যই বন্ধ করবেন।

বাসার আর্থিং ব্যবস্থা ঠিকঠাক আছে কিনা, নিশ্চিত করে যেতে হবে।

পানির কলও বন্ধ রেখে যাবেন।

ওয়াশরুমে বা কোথাও খোলা জায়গায় পনি জমিয়ে রেখে যাবেন না।  

কমোডের ঢাকনা খোলা রেখে যাবেন না।

ঘরের মেঝে ভালো করে পরিষ্কার করে রেখে যাবেন। 

ঘরে কোথাও ভেজা কাপড় জমিয়ে রেখে যাবেন না।

সূত্র: টাইমস  অব ইণ্ডিয়া, হোম সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম প্রিভেনশন অবলম্বণে

/লিপি

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়