ঢাকা     বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১১ ১৪৩১

নৌকার পক্ষে প্রচারণা, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার প্রত্যাহার দাবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:১৬, ২৩ ডিসেম্বর ২০২৩  
নৌকার পক্ষে প্রচারণা, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার প্রত্যাহার দাবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর ও বিজয়নগর) আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালানোর অভিযোগ এনে সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা উম্মে সালমার প্রত্যাহার দাবি করা হয়েছে। শুক্রবার (২২ ডিসেম্বর) জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসকের কাছে এই প্রসঙ্গে লিখিত অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ফিরোজুর রহমানের প্রধান নির্বাচনি এজেন্ট শেখ ওমর ফারুক।

সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করে ফিরোজুর রহমান আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে তিনি এই আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। তাঁর প্রতীক কাঁচি। প্রধান নির্বাচনি এজেন্ট শেখ ওমর ফারুক সদর উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ফিরোজুর রহমানের ছেলে।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা উম্মে সালমা সরকারি কার্যালয় ব্যবহার করে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার জন্য বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের প্রভাবিত করছেন। বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালিয়ে প্রচারপত্র বিতরণ করেছেন। 

অভিযোগপত্রে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, উম্মে সালমা আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত হলে বা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কর্মস্থলে অবস্থান করলে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের প্রভাবিত করে সুষ্ঠু নির্বাচন বাধগ্রস্ত করবেন। ফলে সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

ফিরোজুর রহমানের প্রধান নির্বাচনি এজেন্ট শেখ ওমর ফারুক জানান, সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ লঙ্ঘন করেছেন৷ নৌকার প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণার কিছু স্থিরচিত্র অভিযোগের সঙ্গে সংযুক্ত করা হয়েছে। এ সব যাচাই-বাছাই করে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া জরুরি।

অভিযোগের বিষয়ে উম্মে সালমা বলেন, ‘এ সব বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। গণমাধ্যমকর্মীদের মাধ্যমে বিষয়টি প্রথমে জানতে পেরেছি। অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।’ 

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সেলিম শেখ বলেন, অভিযোগের বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা ব্যবস্থা নিয়েছেন। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে তিন দিনের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আগামী ৭ জানুয়ারি সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ করা হবে। 

রুবেল/বকুল 

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়