ঢাকা     শনিবার   ১৩ এপ্রিল ২০২৪ ||  চৈত্র ৩০ ১৪৩০

‘আমরা তুলতেও পারি, ফেলতেও পারি’ 

রাজশাহী প্রতিনিধি  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৫৪, ২ জানুয়ারি ২০২৪  
‘আমরা তুলতেও পারি, ফেলতেও পারি’ 

এলাকায় ১৫ বছরে দুই জন এমপি ছিলেন। কিন্তু কাউকেই চোখে দেখেননি রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার যুগিশো গ্রামের বাসিন্দারা৷ এ আসনের ভোটের মাঠে এবার নতুন মুখ ওবায়দুর রহমান। মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) বিকেলে এই গ্রামে তিনি ভোট চাইতে গেলে সাধারণ মানুষ গায়ে ফুল ছিটিয়ে তাকে বরণ করে নিলেন। আর বললেন, গত ১৫ বছরে তারা কোনো এমপিকে দেখেননি। এবার তারা তাকে ভোট দেবেন। কিন্তু তিনিও যেন তাদের ভুলে না যান।

গ্রামের বাসিন্দা রাশেদা বেগম বললেন, ‘ফুল ফোটে লতার মাঝে, সময় হলে মানুষ টেনে নেয় বুকের মাঝে। আপনি হলেন সেই ফুল। এখন আমরা আপনাকে বুকের মাঝে টেনে নিব। কিন্তু আপনার কাছে গেলে আমাদের বুকে টেনে না নিয়ে ডাস্টবিনে ফেলে দিবেন না। ভোট কার কাছে আছে? ভোট আছে পা ফাটা মানুষের কাছে। আমরা তুলতেও পারি। ফেলতেও পারি।’ 

তিনি বলেন, ‘১৫ বছর ধরে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায়। আমরা আওয়ামী লীগকেই ভোট দিই৷ কিন্তু এমপিকে কোনো দিন এলাকায় চোখে দেখিনি। আমাদের মনে দুঃখ আছে। সেই দুঃখের কারণেই এবার আমরা অন্য প্রার্থীকে ভোট দিব। ভোট নেওয়ার পর আপনি আমাদের ভুলে যাবেন না।’ 

এ সময় ওবায়দুর রহমান তাকে সুযোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘আমাকে একটা সুযোগ দিন। ৫ বছর দেখেন। আমাকে পাশে না পেলে পরের বার ভোট চাইতে এলে ঝাটা নিয়ে তাড়া দিবেন।’ 

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন যুবলীগ নেতা ওবায়দুর রহমান। তার প্রতীক ঈগল। এ আসনের বর্তমান এমপি মনসুর রহমান এবার মনোনয়ন পাননি। তিনি এবার নির্বাচন করছেন না। এ আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ দারা। তিনি ২০০৮ ও ২০১৪ সালের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নে এখানকার এমপি হয়েছিলেন। ২০১৮ সালে তাকে বাদ দিয়ে মনসুর রহমানকে মনোনয়ন দেওয়া হয়।
 

কেয়া/বকুল

সম্পর্কিত বিষয়:

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়