ঢাকা     সোমবার   ০৪ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ২০ ১৪২৯ ||  ০৪ জিলহজ ১৪৪৩

লিভারপুলের সপ্তম নাকি রিয়ালের চতুর্দশ?

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৫৬, ২৮ মে ২০২২   আপডেট: ১১:১১, ২৮ মে ২০২২
লিভারপুলের সপ্তম নাকি রিয়ালের চতুর্দশ?

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগকে যেন নিজেদের সম্পত্তি বানিয়ে ফেলেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ইউরোপ সেরার এই প্রতিযোগিতায় ১৬ বার ফাইনালে উঠে ১৩ বার শিরোপা জিতেছে স্পেনের ক্লাবটি। তাদের অর্ধেকেরও কম শিরোপা জিতেছে লিভারপুল। তাদের ঝুলিতে আছে ৬টি শিরোপা।

সবশেষ ২০১৭-২০১৮ মৌসুমে ফাইনালে উঠেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। সেবার এই লিভারপুলকে হারিয়েই রেকর্ড ১৩তম শিরোপা জিতেছিল রিয়াল। এবার তাদের সামনে আবারও সেই লিভারপুল। এবার রেকর্ড ১৪তম শিরোপা জয়ের হাতছানি। অন্যদিকে লিভারপুলের সামনেও রিয়াল। তাদের সামনে রয়েছে সপ্তম শিরোপা জয়ের সুযোগ। রয়েছে চার বছর আগের বদলা নেওয়ার সুযোগ।

অবশ্য গেল চার বছরে মাদ্রিদের মানজানারেস ও লিভারপুলের মার্সি নদীর জল গড়িয়েছে অনেক। পরিবর্তন এসেছে অনেক কিছুতে। রিয়াল ছেড়ে গেছেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর ও পাঁচবার চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা জয়ী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। নেই রিয়ালের হয়ে ৬৭১ খেলা অভিজ্ঞ সার্জিও রামোসও। বদলেছে তাদের কোচও। নেই জিনেদিন জিদান।

তবে লিভারপুলের অনেকেই এবারও আছেন। সেবার যেমন ছিলেন কোচ জার্গেন ক্লপ, এবারও তিনি আছেন। যিনি ২০১৮-১৯ মৌসুমে লিভারপুলকে ১৪ বছর পর ইউরোপ সেরার মুকুপ পরিয়েছিলেন। তার সঙ্গে আছেন তিন শিষ্য মোহাম্মদ সালাহ, রবার্তো ফিরমিনো ও সাদিও মানে। তাদের পারফরম্যান্সে ভর করে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপার জন্য শেষদিন পর্যন্ত লড়াই করেছে লিভারপুল। যদিও ১ পয়েন্টে পিছিয়ে থেকে রানার্স-আপ হয়েছে তারা। তবে সালাহ যৌথভাবে হয়েছেন প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা। তাদের পারফরম্যান্সে ভর করে লিভারপুল যে তিন বছর পর এসেছে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে। তাদের আটকাতে পারবে তো রিয়াল?

তবে কম যান না কোচ কার্লো আনচেলোত্তিও। তার ক্যারিয়ারও যে চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতে সমৃদ্ধ। তার তত্ত্বাবধানে এসি মিলান তিনবার চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল খেলে দুইবার শিরোপা জিতেছে। শুধু কি তাই? ২০১৩-১৪ মৌসুমে তার তত্ত্বাবধানে রিয়াল মাদ্রিদও জিতেছিল চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা। জাঁদরেল এই কোচের সঙ্গে দুর্দান্ত ফর্মে আছেন করিম বেনজেমা। তার সঙ্গে দারুণ খেলছেন ভিনিসিউস জুনিয়র ও রদ্রিগো।

তবে বেনজেমা রীতিমতো উড়ছেন। চ্যাম্পিয়নস লিগের চলতি মৌসুমের নকআউট পর্বে দুই হ্যাটট্রিকসহ ১০ গোল করেছেন। লিগ পর্বে করেছেন ৫ গোল। ফাইনালে দুই গোল করলে এক মৌসুমে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর করা এক মৌসুমে সর্বোচ্চ ১৭ গোলের রেকর্ড তিনি ছুঁয়ে ফেলবেন। আর হ্যাটট্রিক করতে পারলে তো রোনালদোর রেকর্ড ভেঙেই দিবেন।

লা লিগায় এবার তিনি ২৭ গোল করে হয়েছেন লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা। তার পারফরম্যান্সে ভর করে রিয়াল জিতেছে লা লিগার ৩৫তম শিরোপা। বেনজেমা যেভাবে উড়ছেন তাতে ম্যাচের পার্থক্য গড়ে দিতে পারেন তিনি।

তাছাড়া নকআউট পর্বে একাধিকবার দলকে খাদের কিনারা থেকে টেনে তুলে ফাইনালে এনেছেন। বিশেষ করে পিএসজির বিপক্ষে ২ গোলে পিছিয়ে থেকে হ্যাটট্রিক করে কোয়ার্টার ফাইনালে তুলেছেন। এরপর চেলসির বিপক্ষেও অতিরিক্ত সময়ে গোল করে দলকে সেমিফাইনালে তোলেন। আর সেমিফাইনালেও অতিরিক্ত সময়ে পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যানসিটিকে বিদায় করে দিয়ে রিয়ালকে ১৭তম ফাইনালের টিকিট পাইয়ে দেন। আজও কি নায়ক হবেন ফরাসি এই স্টাইকার? নাকি তাকে ছাপিয়ে নায়ক বনে যাবেন মোহাম্মদ সালাহ কিংবা সাদিও মানে-ফিরমিনোরা? জানতে অপক্ষো করতে হবে গভীর রাত পর্যন্ত।

ঢাকা/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়