ঢাকা     বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১১ ১৪৩১

৩ স্বতন্ত্র প্রার্থীকে নিয়ে জাহাঙ্গীর আলমের শোডাউন

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:০৩, ১৮ ডিসেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১৯:০৬, ১৮ ডিসেম্বর ২০২৩
৩ স্বতন্ত্র প্রার্থীকে নিয়ে জাহাঙ্গীর আলমের শোডাউন

গাজীপুরের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পরপরই তিন স্বতন্ত্র প্রার্থীকে নিয়ে শোডাউন করেছেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম। সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার দিকে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে বেরিয়ে দুপুর সোয়া ১২টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নিয়ে তিনি গাজীপুর রাজবাড়ী মাঠে উপস্থিত হন।

তিন স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেন- গাজীপুর-১ আসনের রেজাউল করিম রাসেল, গাজীপুর-২ আসনের কাজী আলিম উদ্দিন ও গাজীপুর-৫ আসনের আখতারউজ্জামান।

সোমবার বিকেলে গাজীপুরের কালীগঞ্জ সংসদীয় আসনের বাড়িয়া ইউনিয়নের একটি রিসোর্টে বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে আখতারউজ্জামানকে সঙ্গে নিয়ে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সাবেক মেয়র। সেখানে তিনি বলেন, ‌‌জনগণকে যারা সম্মান করবে তাদের জনপ্রতিনিধি হওয়া দরকার। আজ দেখেন সব আওয়ামী লীগ এক হয়েছেন। যার রক্তে আওয়ামী লীগ, যারা আওয়ামী লীগকে ভালোবাসেন, আওয়ামী লীগের জন্য যারা জীবন দেন তারা আজ এক হয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, ‌‌‌‌প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা একটা সুযোগ দিয়েছেন। সেই সুযোগ আগামী ৭ জানুয়ারি আমরা কাজে লাগাতে চাই।  আমরা সবাই আজ একতাবদ্ধ। কেউ হুমকি দিলে খালি নম্বরটা দিয়ে দেবেন। চুরি আর ছ্যাঁচড়ামি চলবে না। আদর্শ লোকেরা রাজনীতি করবে, আদর্শ লোকেরা জনপ্রতিনিধি হবে। আমাদের আদর্শের ভাই আখতারউজ্জামান। তার আদর্শ ও নীতির সঙ্গে আমরা আছি। আখতারউজ্জামান ভাইকে নিয়ে প্রথম পর্যায়ে আমরা বাড়িয়া ইউনিয়নকে পৌরসভা বানাবো।

আমাদের পদচ্যুত করার ভয় দেখিয়ে লাভ নেই উল্লেখ করে সাবেক মেয়র আরও বলেন, আমরা আওয়ামী লীগের সমর্থক। অন্যান্য রাজনৈতিক দলের কর্মী সমর্থকদের আমরা সম্মান করি। কারণ, এটা গণতান্ত্রিক দেশ। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় যারা মানুষকে ক্ষতি করবে না, রাষ্ট্র, সরকার ও নির্বাচন কমিশনারের বিধি অনুযায়ী যারা চলবে, আমরা তাদের সঙ্গে আছি।

গাজীপুর-৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আখতারউজ্জামান বলেন, ভোট সুষ্ঠু করতে হবে। সবাইকে ভোট দিতে আসতে হবে। প্রত্যেক কেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত লাইন ধরে মা-বোনেরা ভোট দেবেন। প্রশাসন ও নির্বাচন কমিশন সবাই আপনাদের সঙ্গে আছেন। তারা নির্বাচনকে একটা আস্থার জায়গায় নিয়ে গেছেন। সবকিছু এখন পর্যন্ত ঠিকভাবে চলছে। আমরা আশা করি, ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত এ রকমই চলবে। মানুষ তার ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

রফিক/মাসুদ

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়