ঢাকা     বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১১ ১৪৩১

‘তামাশার নির্বাচন বাতিল হলে দেশ বিপদ থেকে বেঁচে যাবে’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:১৯, ১ জানুয়ারি ২০২৪  
‘তামাশার নির্বাচন বাতিল হলে দেশ বিপদ থেকে বেঁচে যাবে’

৭ জানুয়ারির নির্বাচন বয়কট করার আহ্বান জানিয়ে গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা বলেছেন, আমরা একতরফা ভোট বাতিল করে দেশের স্বার্থে, নাগরিকের স্বার্থে সুষ্ঠু ভোট চাচ্ছি। তামাশার নির্বাচনটা বাতিল হলে দেশ ভয়াবহ বিপদ থেকে বেঁচে যাবে। কিন্তু, আওয়ামী লীগ নিজেদের গদি রক্ষার জন্য রাষ্ট্রীয় সব ধরনের ক্ষমতা ব্যবহার করে জবরদস্তিমূলক ও পরিকল্পিত একতরফা নির্বাচন আয়োজন করছে। এই নির্বাচনকে সুষ্ঠু দেখালেই সুষ্ঠু হয়ে যাবে না। এই তামাশার নির্বাচন বাংলাদেশকে আন্তর্জাতিক পরিসরে ভয়ঙ্কর হুমকির মধ্যে ফেলবে।

সোমবার (১ জানুয়ারি) দুপুরে পুরানা পল্টন মোড়ে ‘একতরফা ভোট বয়কট করুন’ এ আহ্বান নিয়ে গণতন্ত্র মঞ্চ আয়োজিত সমাবেশে সংগঠনটির নেতারা এসব কথা বলেন।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দীন মাহমুদ স্বপনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ভাসানী অনুসারী পরিষদের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের সাংগঠনিক সমম্বয়ক ইমরান ইমন ও নাগরিক ঐক্যের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোফাখখারুল ইসলাম নবাব।

গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা বলেন, আওয়ামী লীগ এখন সুষ্ঠু নির্বাচন দেখাতে মরিয়া। সেজন্য নিজের দলের লোকজনকে প্রতিদ্বন্দ্বী বানিয়ে জাতীয় নির্বাচনকে আজ স্থানীয় পর্যায়ের নির্বাচন বানিয়ে ফেলেছে তারা। যদিও প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ আসনে কার্যকর কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছাড়াই ২০১৪ সালের মতো তারা ইতোমধ্যেই জয় নিশ্চিত করে ফেলেছে। সরকারবিরোধী দলকে বিদেশনির্ভর বলে অভিযুক্ত করে। কিন্তু, আসলে আওয়ামী লীগ যে বিদেশনির্ভর, সেটা প্রমাণিত হচ্ছে বারবার ‘সুষ্ঠু নির্বাচন দেখাতে হবে’ এই ঘোষণার মধ্যে দিয়ে।

তারা বলেন, ‘এটা যে ভুয়া নির্বাচন, মানুষ তা বোঝে। সে কারণে মানুষ শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে এবং গণজোয়ারের মধ্যে দিয়ে ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা অবিলম্বে সংসদ ভেঙে দিয়ে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে রাজনৈতিক সঙ্কট সমাধান করে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন আয়োজনের আহ্বান জানান। 

জেএসডির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারীর সঞ্চালনায় সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক হাসনাত কাইয়ূম, নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ কায়সার, ভাসানী অনুসারী পরিষদের সদস্য সচিব হাবিবুর রহমান রিজু, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য বহ্নিশিখা জামালী, জেএসডির সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট কে এম জাবের, গণসংহতি আন্দোলনের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য বাচ্চু ভূঁইয়া প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে গণতন্ত্র মঞ্চের নেতাকর্মীরা একটি মিছিল সহযোগে পল্টন মোড় থেকে দৈনিক বাংলা হয়ে ফকিরাপুল ও বিজয়নগর এলাকায় গণসংযোগ করেন। 

মঙ্গলবারের কর্মসূচি:
মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) সকাল ১১টা ৩০ মিনিটে কাকরাইল মোড়ে সমাবেশ, গণসংযোগ ও মিছিল করবে গণতন্ত্র মঞ্চ।

নঈমুদ্দীন/রফিক

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়