ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১১ ১৪৩১

ইয়ুথ ওয়েলনেস ফেস্টিভ্যালের প্রথম আয়োজন অনুষ্ঠিত 

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:০৩, ৬ জুন ২০২৩  
ইয়ুথ ওয়েলনেস ফেস্টিভ্যালের প্রথম আয়োজন অনুষ্ঠিত 

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো ঢাকা ফ্লো নিবেদিত ইয়ুথ ওয়েলনেস ফেস্টিভ্যালের প্রথম পর্ব।

ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টসে (ইউল্যাব) শনিবার এই পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

ফেস্টিভ্যালের এই পর্বের আলোচনার বিষয়বস্তু ছিল মানসিক, শারীরিক ও আত্মিক স্বাস্থ্য। দুইশ শিক্ষার্থী দিনব্যাপী রিসার্চ হলে স্বাস্থ্যসম্মত জীবনযাপনের এই আয়োজনে অংশগ্রহণ করেন।

ফেস্টিভ্যালের পরবর্তী পর্বগুলো এ সপ্তাহে আইইউবি, এআইইউবি ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে।

ফেস্টিভ্যালে আয়োজক কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়, শিক্ষার্থীরা তাদের জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ে আছেন। শীঘ্রই তাদের অনেকেই কাজ ও পড়াশোনার প্রয়োজনে পরিবার থেকে দূরে থাকবে। তাই এ সময়ে নেওয়া সিদ্ধান্তগুলো ও তৈরি করা অভ্যাসগুলোই প্রাপ্তবয়স্ক হবার পর তাদের সুস্বাস্থ্যের ভিত্তি হিসেবে কাজ করবে। মানসিক চাপ ও হতাশার সাথে খাপ খাইয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়া তাদের জন্য জানা আবশ্যক। পাশাপাশি তাদের খাদ্যাভ্যাস, ব্যায়াম ও ধ্যান সম্পর্কেও প্রয়োজনীয় জ্ঞান রাখতে হবে।

ইয়ুথ ওয়েলনেস ফেস্টিভালের এ আয়োজনে সহযোগিতা করেছে পাঁচটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে-তুরাগ অ্যাকটিভ, একটি ক্রীড়াভিত্তিক পোশাক উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান, যারা সক্রিয় জীবনধারা অন্বেষণে প্রয়োজনীয় পোশাক সরবরাহ করে থাকে। প্রাইম ব্যাংক স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের অর্থ ব্যবস্থাপনা শিখতে উদ্বুদ্ধ করে। ট্রেন্ডি স্টাইল নিয়ে এসেছিলো ফ্যাশন ব্রান্ড-রাইজ।

আয়োজনটিতে সুস্থতা ও মানসিক স্বাস্থ্যের অন্যতম পৃষ্ঠপোষক সাজেদা ফাউনডেশনের প্রতিনিধিত্ব করেছে কান পেতে রই (আত্মহত্যা প্রতিরোধ হটলাইন), স্বজন (মানসিক স্বাস্থ্য পরামর্শদাতা) এবং রিলাক্সি, একটি অ্যাপ; যা আপনার আবেগ ও অনুভুতিকে বুঝতে এবং পরিচালনা করতে সহায়তা করে। আড়ং আর্থ সরবরাহ করছে পরিষ্কার ত্বক ও চুলের যত্নে প্রয়োজনীয় প্রসাধনী সামগ্রী।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম আয়োজনটিতে ডায়াবেটিস ও হৃদরোগের মত অসংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণে ধ্যান ও ইয়োগার প্রয়োজনীয়তা প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখেন। তিনি প্রশ্ন রাখেন, ‘কিভাবে আমরা যুব সমাজের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে পারি, যেহেতু তারাই আমাদের দেশের ভবিষ্যৎ এবং স্বপ্নের ধারক।’

ঢাকা ফ্লো-এর ইয়োগা প্রশিক্ষক ও সহপ্রতিষ্ঠাতা সাজিয়া ওমর বলেন, সুস্থতাকে সামগ্রিকভাবে আত্মস্থ করতে হবে। সুস্থ জীবনযাপনের পরিবেশ তৈরি করতে হলে আমাদের একত্রিতভাবে কাজ করতে হবে যদি আমরা একটি দেশ হিসেবে এসডিজি ৩: স্বাস্থ্য এবং সুস্থতা অর্জন করতে চাই।  ইয়োগা মানুষকে মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তার সাথে খাপ খাইয়ে নিতে ও অন্যান্য শারীরিক এবং মানসিক অসুস্থতা কমিয়ে আনতে সাহায্য করে। ধ্যান ও মননশীলতা আমাদের একাগ্রতা, সমবেদনা, শান্তি ও সাম্প্রদায়িকয়তাকে উন্নত করে।  স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস ও পুষ্টিগুণ বিষয়ক উপলব্ধি আমাদেরকে ডায়াবেটিস ও হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে এবং আত্মিক শান্তি অর্জন করতে সাহায্য করে।  সুস্বাস্থ্যের এই পথচলায় সঙ্গী হতে ও ‘স্রোতের প্রতি আত্মসমর্পণ’ করতে, ঘুরে আসুন ঢাকা ফ্লো-এর ওয়েবসাইট থেকে এবং ঢাকা ফ্লো-কে ফলো করুন ফেসবুক ও ইন্সটাগ্রামে।  

/হাসান/এসবি/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়