ঢাকা     শনিবার   ১৫ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১ ১৪৩১

কক্সবাজারে জোয়ারে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, আশ্রয়কেন্দ্রে ছুটছে মানুষ

কক্সবাজার প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৩৪, ২৬ মে ২০২৪   আপডেট: ১৬:২৯, ২৬ মে ২০২৪
কক্সবাজারে জোয়ারে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, আশ্রয়কেন্দ্রে ছুটছে মানুষ

কক্সবাজারে ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে সমুদ্রের পানি বেড়ে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। শহরের সমিতি পাড়া, কুতুবদিয়া পাড়া, মধ্যম কুতুবদিয়া পাড়া, ফদনার ডেইল, নাজিরারটেক এলাকার কয়েকটি বাড়িতে জোয়ারের পানি প্রবেশ করেছে। ফলে সেখানকার বাসিন্দাদের দুর্ভোগ বেড়েছে। 

রোববার (২৬ মে) সকাল থেকে কক্সবাজারে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। একই সঙ্গে বয়ে যাচ্ছে ধমকা হাওয়া। সাগরে ৪ থেকে ৫ ফুট বেড়েছে পানির উচ্চতা। বড় বড় ঢেউ আঁচড়ে পড়ছে সৈকতপাড়ে। প্লাবিত এলাকার লোকজন ইতোমধ্যে আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে শুরু করেছেন। সেখানকার বাসিন্দাদের নিরাপদে সরিয়ে নিতে কাজ করছে সিপিপি, রেড ক্রিসেন্ট ও কক্সবাজার পৌরসভার স্বেচ্ছাসেবকেরা। 

কক্সবাজার পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আকতার কামাল আজাদ বলেন, ‘সমুদ্রের পাশের এলাকায় জোয়ারের পানি প্রবেশ করেছে। ফলে লোকজন আশ্রয়কেন্দ্রে যাচ্ছেন। তাদের দুর্ভোগ নিরসনে কাজ করে যাচ্ছি।’

কক্সবাজারের সহকারী আবহাওয়াবিদ মো. আবদুল হান্নান বলেন, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ঘূর্ণিঝড় রেমাল ৩৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছে। এটি প্রতিনিয়ত উত্তরদিকে অগ্রসর হচ্ছে। আজ রোববার সন্ধ্যা বা রাতে ঝড়টি উপকূলে আঘাত হানতে পারে।

সকালে সৈকতের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে গিয়ে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মুহম্মদ শাহীন ইমরান বলেন, ঘূর্ণিঝড় রেমাল মোকাবিলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। আপদকালীন সময়ে সার্বিক যোগাযোগ রক্ষায় কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। কন্ট্রোল রুমের মোবাইল নম্বর- ০১৮৭২৬১৫১৩২। ৬৩৮টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। পর্যাপ্ত শুকনো খাবার মজুত আছে।

তারেকুর/মাসুদ

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়